নদী ভাঙন রোধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করার আহবান : অধ্যাপক মোঃ জাকির হোসেন


sylnews প্রকাশের সময় : মে ১২, ২০২২, ৪:২৬ অপরাহ্ন /
নদী ভাঙন রোধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করার আহবান : অধ্যাপক মোঃ জাকির হোসেন

সিসিক’র নবগঠিত ৩৯ নং ওয়ার্ডের ঐতিহ্যবাহী টুকেরবাজার এলাকার পীরপুরে নদী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করেছেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন। পরিদর্শনকালে তিনি স্থানীয় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের সাথে কথা বলেন। তিনি বলেন, ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্ত হয় মরহুম সালাম মেম্বারের বসত-ভিটা। তার পরিবার বর্তমানে ভাঙন আতঙ্কে দিন যাপন করছেন। তাছাড়াও এলাকার অনেক বাড়ি নদী ভাঙনের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। আমি ইতিমধ্যে মাননীয় জেলা প্রশাসক মজিবুর রহমানের সাথে ভাঙন বিষয়ে কথা বলেছি। জেলা প্রশাসক মহোদয়কে নদী ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য বলেছি। তিনি বলেছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের সাথে এ বিষয়ে আলোচনা করে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন এবং এই এলাকা পরিদর্শন করবেন।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) দুপুরে টুকেরবাজার এলাকার পীরপুরে নদী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শনকালে তিনি এসব বক্তব্য প্রদান করেন।

তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যেকোনো দুর্যোগে জনগণের পাশে থাকেন এবং সর্বোচ্চ সহযোগিতার হাত প্রসারিত করেন। সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থানা বিভাগও সহযোগিতার বিষয়ে অত্যন্ত আন্তরিক। ভাঙন বিষয়ে মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সাংসদ ড.এ.কে আব্দুল মোমেন মহোদয়ের সাথে কথা বলবো। তিনি বলেন, স্থানীয় প্রশাসন নদী ভাঙন রোধে যে বেড়ি বাঁধ দিয়েছেন তা ভাঙন রোধে যথাযথ নয়। আমরা দেখেছি, সিলেটের কৃতি সন্তান স্পীকার মরহুম হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী যখন সিলেট-১ আসনের সাংসদ ছিলেন তখন তিনি এই এলাকায় ভাঙন রোধে শক্ত ব্লক দিয়েছিলেন। কিন্তু এখন তা পানিতে তলিয়ে গেছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয় প্রশাসনকে এ বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া প্রয়োজন। এই ঘনবসতি এলাকাকে ভাঙন থেকে রক্ষার্থে শক্তিশালী বেড়ি বাঁধ নির্মাণ করতে হবে। তা না হলে এই ভাঙন সিলেট-সুনামগঞ্জ হাইওয়ে রোডে আঘাত আনবে। জেলা প্রশাসন, পানি উন্নয়ন বোর্ড সহ সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগকে ভাঙন রোধে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য আহবান জানাচ্ছি। তাহলে এই অত্র এলাকার জনগণ নদী ভাঙন আতঙ্ক থেকে মুক্তি পাবে। মহান আল্লাহপাক সবাইকে হেফাজতে রাখবেন, আমীন। উল্লেখ্য এরপর আধ্যাপক জাকির হোসেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে ফোনে কথা বলেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করে এসেছেন। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মহলের সাথে যোগাযোগ রাখছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোঃ জাকির হোসেন।

এসময়ে উপস্তিত ছিলেন ৬ নং টুকেরবাজার ইউ/পি আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাফছা মিয়া, সাধারন সম্পাদক আব্দুল মুকিত, সহ -সাধারণ সম্পাদক মো আলামিন, প্রচার সম্পাদক সিরাজুল হক, আওয়ামী লীগ নেতা ইউ/পি সদস্য ১নং ওয়ার্ড গিয়াম উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা মকবুল হোসেন,
মঞ্জু হোসেন, কবির মিয়া, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক উপ সম্পাদক শহীদ আকীল অপু,
যুবনেতা জাকির আহমদ, কবির আহমদ,মহানগর ছাত্রলীগ নেতা মোঃ আল -আমিন, শ্রমিক নেতা সালমান সহ প্রমুখ।