বিমানবন্দরে জীবন্ত কিংবদন্তী ক্বারী আমির উদ্দিনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন জননেতা এমপি মানিক


sylnews প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৩, ২০২১, ৪:৫১ অপরাহ্ন /
বিমানবন্দরে জীবন্ত কিংবদন্তী ক্বারী আমির উদ্দিনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন জননেতা এমপি মানিক

নিজেস্ব প্রতিবেদকঃ জীবন্ত কিংবদন্তি বাউল ক্বারী আমির উদ্দিন আহমেদ যুক্তরাজ্য থেকে আজ ১৩ নভেম্বর (শনিবার) সকালের ফ্লাইটে সপরিবারে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর সিলেটে এসে পৌছেন।

সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জীবন্ত কিংবদন্তী ক্বারী আমির উদ্দিনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান সুনামগঞ্জ-৫ (ছাতক-দোয়ারা) আসনের বারবার নির্বাচিত সাংসদ জননেতা মুহিবুর রহমান মানিক এমপি, এসপি ফয়সাল মাহমুদ, ক্বারী আমির উদ্দিন আহমদ সাংস্কৃতিক পরিষদ এর আহবায়ক মুজিব মালদার, সাবেক ছাত্র নেতা রফিকুল ইসলাম কিরণ, ক্বারী আমির উদ্দিন আহমদ সাংস্কৃতিক পরিষদ এর সদস্য সচিব গোলাম হায়দার রুবেল, ক্বারী আমির উদ্দিন আহমদ সাংস্কৃতিক পরিষদ এর সহ-সভাপতি ও গোবিন্দগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক বাবুল দেব, বাউল জুয়েল আহমেদ, সাফিউল আলী বেলাল (প্রবাসী), চিত্রশিল্পী তারেক আমিন।

উল্লেখ্য যে, বাউল ক্বারী আমির এর জন্ম ১৯৪৩ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারী সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার উত্তর খুরমা ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামে। পিতার নাম শাহ মুহাম্মদ রুস্তম আলী শেখ, মাতার নাম আলেকজান বিবি। আলমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহণ করেন। পরবর্তীতে ইসলামিক জ্ঞান অর্জনের লক্ষ্যে সিলেট আলিয়া মাদ্রাসা ও সৎপুর কামিল মাদ্রাসায় লেখাপড়া করেন। এই সময় দারুল ক্বিরাত মজিদিয়া ফুলতলী হতে ‘ক্বারীয়ানা’ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন এবং তখন থেকেই নামের শুরুতে “ক্বারী” টাইটেল যুক্ত হয়। এরপর তিনি সিলসিলায়ে ফুলতলীর অন্যতম কামিল পীর মরহুম শাহ মুহাম্মদ আনাস আলি (র)-এর নিকট বাইয়াত গ্রহণ করেন। মূলত তিনিই ছিলেন বাউল ক্বারী আমির উদ্দিনের গুরু।

সংগীত প্রেমীদের মতে বর্তমান সময়ের বাউলদের মধ্যে ক্বারী আমির উদ্দিন শীর্ষ স্থানীয়। তার লেখা গান করেননি এমন বাউল গানের শিল্পী খুঁজে পাওয়া কঠিন। তার লিখিত গানের সংখ্যা প্রায় পাঁচ হাজারের অধিক। বলতে গেলে বাউল গীতিকবিদের মধ্যে সর্বাধিক বাউল গানের স্রষ্টা ক্বারী আমির উদ্দিন।

গানের পাখি ক্বারী আমির উদ্দিন একসময় পাড়ি জমান যুক্তরাজ্যে। বিভিন্ন কারণে দেশে আসেননি অনেক বছর। বিগত কয়েক বছর থেকে দেশে আসছেন এই জীবন্ত কিংবদন্তী। দেশের প্রতি এবং দেশের মানুষের প্রতি ভালোবাসার টানে ৪র্থ বারের মতো দেশে আসলেন তিনি।