সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওর ভ্রমণে নৌকার ভাড়া নির্ধারণ করলো ট্রলার মালিক সমিতি


sylnews প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ৯, ২০২১, ২:৫১ অপরাহ্ন /
সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওর ভ্রমণে নৌকার ভাড়া নির্ধারণ করলো ট্রলার মালিক সমিতি

সিলেটে করোনা পরিস্থিতি ঊর্ধ্বগতি এবং লকডাউন স্থিতিশীল হওয়ার পর থেকেই সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় পর্যটকদের আগমন বেড়েছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা পর্যটকেরা হাওর ভ্রমণ করার জন্য নৌকার মাঝিদের সঙ্গে দর-কষাকষি করতে হয়। পর্যটকদের অভিযোগ একটি ছোট নৌকা নিয়েও হাওরে ঘুরতে গেলে ৮ থেকে ১০ হাজার টাকা দিতে হয়। এক্ষেত্রে মাঝিরা অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছেন বলে দাবি পর্যটকদের। এসব কারণে নৌকার মালিক পক্ষের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়ে থাকে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার তাহিরপুর ট্রলার মালিক সমিতির পক্ষ থেকে লিখিতভাবে হাওর ভ্রমণে পর্যটকদের জন্য নৌকা ভাড়া নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। 

ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত ভাড়া নির্ধারণ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, তাহিরপুর সদর বাজার থেকে টাঙ্গুয়ার হাওরের ওয়াচ টাওয়ার হয়ে ট্যাকরেঘাট ঘুরে পুনরায় সদর বাজারে ফিরে আসাসহ প্রতিটি ছোট নৌকা ৪ হাজার টাকা, বড় নৌকা ৮ হাজার টাকা এবং বড় স্টিলের নৌকা ১ দিনের জন্য ১২ হাজার টাকা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। 

টাঙ্গুয়ার হাওর ঘুরে এসে শফিক নুর নামের এক ভ্রমণ পিপাসু বলেন, আমরা আমাদের সংগঠন ছাতক সমিতি থেকে নীলাদ্রি এবং টাঙ্গুয়ার হাওর বেড়াতে যাই। ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার ৪ টায় নৌকায় উঠি। নৌকায় রাত্রিযাপন করে পরের দিন ১২ টায় চলে আসি।আমাদের কাছথেকে ১৮ হাজার টাকা ভাড়া নিয়েছে। লাইফ জ্যাকেট এবং অন্যান্য সুবিধার কথা থাকলেও সেসব সার্ভিস পাইনি। নৌকার মান এবং সার্ভিসের তুলনায় টাকা অনেক বেশি মনে হয়েছে আমার কাছে।

সমিতির আরেক সদস্য কবির আহমেদ বলেন, পর্যটন স্পটগুলোতে সঠিক তদারকির মাধ্যমে পর্যটন বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। যাতে দেশ-বিদেশ থেকে পর্যটকরা নির্বিঘ্নে এখানে বেড়াতে আসতে পারে। নিরাপত্তার দিকেও প্রসাশনের দৃষ্টি দেওয়া উচিৎ।

তাহিরপুর ট্রলার মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির গণমাধ্যমকে জানান, অতিরিক্ত ভাড়ার বিষয়ে পর্যটকদের অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা নৌকা ভাড়া নির্ধারণ করে দিয়েছি। 

তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রায়হান কবির গণমাধ্যমকে বলেন, পর্যটকদের ভ্রমণে নিয়ে যাওয়ার জন্য নৌকার ভাড়া অতিরিক্ত নেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে আমরা খুব শিগগিরই নৌকা ভাড়া নির্ধারণ করে দেব।