মানুষের কল্যাণে কাজ করছে ক্যাপ ফাউন্ডেশন – মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী 


sylnews প্রকাশের সময় : অগাস্ট ১, ২০২১, ৭:০১ অপরাহ্ন /
মানুষের কল্যাণে কাজ করছে ক্যাপ ফাউন্ডেশন – মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী 

সিলেট নগরীর রায়নগর এলাকায় অসহায় মানুষের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করেছে ‘ক্যাপ ফাউন্ডেশন’(ইউকে)। ১লা অাগস্ট রোজ রবিবার দুপুর ২ ঘটিকায় ১৯ নং ওয়ার্ডের রায়নগর এলাকার সেবক-৮৭ হোসেন লজ প্রাঙ্গনে অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। 

খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন এবং বক্তব্য রাখেন মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.এ.কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর শোকের মাসে ক্যাপ ফাউন্ডেশন (ইউকে) অসহায় মানুষের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। করোনাকালীন সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে। তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছে আগস্ট মাসে প্রতিদিন তারা খাদ্য বিতরণ করবে। আমার মোমেন ফাউন্ডেশনকে এই কার্যক্রমে যুক্ত করায় তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি বলেন, ব্রিটিশ বাংলাদেশী কিছু তরুণ ক্যাপ ফাউন্ডেশনকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। তারা অতীতেও Boat for life এই স্লোগানে মেহনতি মানুষকে নৌকা দেন। তাছাড়া জীবীকা নির্বাহের জন্য রিকশা, স্যানিটারি ল্যাট্রিন স্থাপন ও চাল, ডাল ও প্রয়োজনীয় খাদ্য দিয়ে সহযোগিতা করছে। আপনারা জানেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবাইকে অসহায় মানুষকে সহযোগিতার আহবান জানিয়েছেন। ক্যাপ ফাউন্ডেশন সেই কাজটিই করছে এবং রিওয়ার্ড পাওয়ার মত কাজ করছে। মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, করোনা মহামারীর সময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সরকার বিভিন্ন খাতে সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের অধীনে অসহায় মানুষদের সহযোগিতার জন্য এ 

পর্যন্ত ১১ কোটি ৭০ লাখ টাকা ও ২৩ হাজার মেট্রিকটন খাদ্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। ৬৪ জেলার জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে ৫ হাজার ৪০০ মেট্রিকটন ও ৩ কোটি ১ লাখ টাকা, ৩২৮ টি পৌরসভায় ৩২০০ মেট্রিকটন ও ৩ কোটি ২৮ লাখ টাকা, ১২ টি সিটি কর্পোরেশনে ৮০০ মেট্রিকটন ও ৪ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। ৩৩৩ নাম্বারে কল করে মানবিক সহযোগিতার ব্যবস্থা করা হয়েছে। নদী ভাঙ্গন ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মাঝে ১৪ হাজার একশ মেট্রিকটন ও ১ কোটি ৪১ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে। ভেকসিনের ক্ষেত্রেও আমাদের কোনো সমস্যা নাই। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যে বলেছে, প্রতি সপ্তাহে ১ কোটি ভেকসিন দেওয়া হবে এবং আগামী আট সপ্তাহে ৮ কোটি ভেকসিন দেওয়া হবে। আশা করি মৃত্যু হারও কমে আসবে। কোনো মৃত্যুই কাম্য নয়। তারপরও আপনারা স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলবেন। মাস্ক পড়বেন এবং দূরত্ব বজায় রাখবেন। সরকার অসহায় ও মেহনতি মানুষের পাশে আছে এবং কাজ করে যাচ্ছে। সবাই মিলে মিশে কাজ করলে কোনো সমস্যাই থাকবে না। স্বাস্থ্য বিধি মেনে সুন্দর ও সুশৃঙ্খলভাবে এই কার্যক্রম পরিচালিত হতে সর্বাত্মক সহযোগিতা জন্য আমাদের মহানগরের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেনকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই। এই কার্যক্রমে অংশ গ্রহণের জন্য ক্যাপ ফাউন্ডেশন সহ আমাদের অন্যান্য নেতৃবৃন্দকেও ধন্যবাদ জানাই। আপনারা সবাই আমার বড় ভাই আবুল মাল আব্দুল মুহিত এর জন্য দোয়া করবেন। তিনি যাতে খুব দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠেন। জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোঃ জাকির হোসেন। তিনি বলেন, ক্যাপ ফাউন্ডেশন করোনাকালীন সময়ে গরিব দুঃখী ও মেহনতী মানুষের জন্য কাজ করছে। গত বছরও তারা এধরনের জনকল্যাণমূলক কাজ করেছে। তিনি বলেন অত্যন্ত সুন্দর ও সুশৃঙ্খলভাবে বৃহত্তর রায়নগর বাসীর অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণ করা হচ্ছে। সিলেট -১ আসনের সাংসদ ও মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে ক্যাপ ফাউন্ডেশন সহ সবাইকে উৎসাহ দিচ্ছেন। আপনারা জানেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা’র সুযোগ্য নেতৃত্বের কারণে করোনাকালীন সময়ের চ্যালেঞ্জ আমরা অতিক্রম করতে পারছি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী মহোদয়ের অসাধারণ কূটনীতিক সফলতার মাধ্যমে ভেকসিন সমস্যারও সুন্দর সমাধান সম্ভব হয়েছে। সময় দেওয়ার জন্য মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী কৃতজ্ঞতা জানাই। চমৎকার আয়োজনের জন্য ক্যাপ ফাউন্ডেশন (ইউকে) কেও কৃতজ্ঞতা জানাই। মহানগর আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত হয়ে ক্যাপ ফাউন্ডেশনকে সহযোগিতা করছে। তাদেরকেও ধন্যবাদ জানাই। আগামীতেও মহানগর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আমরা সহযোগিতা অব্যাহত রাখবো। পরিশেষে তিনি ১৫ আগস্টে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ নিহত পরিবারের সকল সদস্যদের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুর রহমান জামিল, ১৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এস.এম শওকত আমিন তৌহিদ, মেট্টপলিটন চেম্বারের পরিচালক হুরেরা ইফতার হোসেন, মহানগর আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক অমিতাভ চক্রবর্ত্তী রনি, শাহ্ খুররম ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক রনদ্বীপ চৌধুরী লিংকন, ক্যাপ ফাউন্ডেশনের কো অর্ডিনেটর মো. দেলোয়ার হোসেন, যুবলীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম মিরাজ, ছাত্রলীগ নেতা নিতিশ রঞ্জন দাস অপু, ক্যাপ ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবক মিলন তালুকদার, ফজল মাহদুদ হৃদয়, দিপক অধিকারী, শামীম তালুকদার, সুমন দাস, তানিম আহমদ, সৌরভ আহমদ, মনোয়ার হোসেন গুলজার, নাজিম আহমদ প্রমুখ।