জালালাবাদ থানায় করা গণধর্ষণ মামলা আসামি কারাগারে


sylnews প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০২১, ২:১৩ অপরাহ্ন /
জালালাবাদ থানায় করা গণধর্ষণ মামলা আসামি কারাগারে

সিলনিউজঃ জালালাবাদ থানায় করা গণধর্ষণ মামলা আসামিদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ইং তারিখ রাত ২১:০৫ ঘটিকায় বাদী মোঃ ইউনুছ আলী, থানা-মোগলাবাজার, জেলা-সিলেট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের এর প্রেক্ষিতে জালালাবাদ থানার মামলা নং-৩১ তাং-২৭/০২/২০২১ইং ধারা-নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০(সংশোধনী-২০০৩) এর ৭/৮/৯(৩)/৩০ রুজু হয়।

উক্ত মামলার বাদীর মেয়ে ভিকটিম (১৪) গত ২০/০২/২০২১ইং তারিখ নবম শ্রেণীর বই আনার জন্য নিজ বাড়ী থেকে এসএমপি’র মোগলাবাজার থানাধীন তোরখলা ইসলামীয়া বালিকা আলিম মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে পায়ে হেটে রওয়ানা করিয়া সকাল অনুমান ০৯:৩০ঘটিকায় তোরখলা ইসলামীয়া বালিকা আলিম মাদ্রাসার সামনে পাকা রাস্তার উপর পৌছামাত্র ১নং আসামী সিএনজি চালক মুহিবুর রহমান তাহার চালনাধীন সিএনজি গাড়ী নং-সিলেট-থ-১২-১২৪৭ তে ভিকটিম সুমাইয়া জান্নাত সুমা(১৪) কে জোরপুর্বক তুলিয়া অচেতন করে জালালাবাদ থানাধীন খালপাড়স্থ ২নং আসামী আদিল এর দোকানের পিছনের রুমে নিয়া আটক রেখে ১নং আসামী সহ এজাহারনামীয় ২-৮নং আসামীগণ ভিকটিম (১৪)কে ২১/০২/২০২১ইং তারিখ রাত অনুমান ৩:০০ঘটিকা পর্যন্ত একের পর এক পালাক্রমে জোরপূর্বক ধর্ষন করায় একপর্যায়ে সে অচেতন হইয়া পড়ে।

উক্ত ঘটনায় ১নং আসামী মুহিবুর রহমান বাদীর নিকট তার মেয়েকে অক্ষত অবস্থায় পেতে হলে ৩,০০,০০০/- টাকা মুক্তিপন হিসেবে দাবী করে। পরে ভিকটিমকে তাহার আত্মীয় স্বজন উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। ভিকটিম কিছুটা সুস্থ হওয়ার পর গত ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ইং তারিখ ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার তাহাকে উক্ত হাসপাতালের নিচ তলায় ওসিসি বিভাগে ভর্তি করেন। ভিকটিম বর্তমানে উক্ত হাসপাতালের ওসিসি বিভাগে চিকিৎসাধীন আছে। ভিকটিমের নিকট হইতে ঘটনার বিস্তারিত জানিয়া গোপন ও বিশ্বস্থ মাধ্যমে আসামীদের নাম ঠিকানা সংগ্রহ করিয়া আত্মীয় স্বজনের সহিত আলোচনা করিয়া থানায় এজাহার দায়ের করলে মামলা রুজু হয়।

উক্ত ঘটনায় মামলার এজাহারনামীয় আসামী ১। মুহিবুর রহমান(৩৭)পিতা-চেরাগ আলী, সাং-মাতাবপুর, থানা-বিশ্বনাথ, জেলা-সিলেট, ২। আদিল(২২) পিতা-সোনা মিয়া, সাং- খালপাড়, থানা- জালালাবাদ, জেলা-সিলেটদ্বয়কে সিলেট জেলার বিশ্বনাথ থানা পুলিশ গত ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ইং তারিখ গ্রেফতার করে ফৌজদারী কার্যবিধি আইনের ৫৪ ধারা মোতাবেক বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করেন। উল্লেখিত আসামীয়দ্বয় বর্তমানে জেল হাজতে আটক আছে। আসামীদ্বয়কে বিধি মোতাবেক অত্র মামলায় গ্রেফতার দেখানোর জন্য আবেদন বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হইয়াছে। বিষয়টি জনাব মোঃ নাজমুল হুদা খান, অফিসার ইনচার্জ, জালালাবাদ থানা, এসএমপি, সিলেট নিশ্চিত করেন।