টিকা প্রয়োগের অনুমতি দিয়েছে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর


sylnews প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২৬, ২০২১, ৬:৩০ অপরাহ্ন /
টিকা প্রয়োগের অনুমতি দিয়েছে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর

ভারত থেকে কেনা অক্সফোর্ডের ৫০ লাখ টিকা মানবদেহে প্রয়োগের অনুমতি দিয়েছে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর। মঙ্গলবার রাজধানীর মহাখালীতে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান বলেন, টিকার প্রতিটি লটের নমুনা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পরীক্ষা করা হয়েছে। বুধবার এই টিকা দিয়েই শুরু হবে করোনাভাইরাসের টিকাদান।

সোমবার এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ ফ্লাইটে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ৫০ লাখ টিকা দেশে আসে। বিমানবন্দর থেকে টিকাগুলো বেক্সিমকোর টঙ্গীর ওয়্যারহাউসে নিয়ে রাখা হয়। এরপর সেগুলোর নমুনা পরীক্ষার জন্য ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরে পাঠানো হয়েছিল।

করোনা মহামারির মধ্যে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তিন কোটি ডোজ টিকা পেতে উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে দেশি প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো ফার্মা ও সরকারের ত্রিপক্ষীয় চুক্তি হয়। ওই চুক্তি অনুযায়ী সোমবার প্রথম চালানের ৫০ লাখ ডোজ টিকা দেশে আসে।

দেশে বুধবার ড্রাই রান বা টিকাদানের মহড়া শুরু হবে। ওইদিন কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে এক নার্সকে টিকাদানের মধ্য দিয়ে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রথম দিন সরাসরি করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় যুক্ত স্বাস্থ্যকর্মীদের পাশাপাশি বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার আরও ২০ থেকে ২৫ জনকে টিকা দেওয়া হবে।

ব্যাপক হারে টিকাদান কার্যক্রম শুরুর আগে ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, মুগদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল এবং বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চারশ থেকে পাঁচশ জনকে টিকা দিয়ে সাত দিন পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। এরপর ৮ ফেব্রুয়ারি গণটিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে। প্রতিদিন দুই লাখ ডোজ করে প্রথম মাসে ৬০ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া হবে

কোভিশিল্ড নামের এই ভ্যাকসিন উৎপাদন করেছে ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউট; এই টিকার মালিকানা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকারের।