Thursday, 22 August, 2019

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ১৬ নং ওয়ার্ডের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা আধুনিকায়নের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন


স্টাফ রিপোর্টারঃ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ১৬নং চকবাজার ওয়ার্ডের উন্নত বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বাস্তবায়নের দাবীতে আজ (৬ আগস্ট) চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশানালের একজন রাজনৈতিক ফেলো এবং চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় পার্টির সদস্য আতাই রাব্বি তানভীর।

তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, ১৬নং চকবাজার ওয়ার্ডের বর্জ্য অপসারণ প্রক্রিয়ার সমস্যা প্রতি কর্তৃপক্ষের সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই। এই সমস্যার কারণে আমাদের এই সুন্দর শহরটি জনদূর্ভোগের শহরে পরিণত হচ্ছে ও বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে কাপাসগোলা, জয়নগর, কাতালগঞ্জ, চট্টগ্রাম কলেজের পূর্ব গেইট, চন্দনপুরা, গনিবেকারী, দেবপাহাড়, মেডিকেল মোড়, চকবাজার কাঁচা বাজার মোড়গুলিতে খোলা স্থানে ডাস্টবিনের আবর্জনার দুর্গন্ধ প্রতিনিয়ত ছড়িয়ে পড়ছে। ১৬নং চকবাজার ওয়ার্ডে (স্থায়ী ও অস্থায়ী) প্রায় লক্ষাধিক লোকের বসবাস। কাঁচাবাজার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাসা বাড়ী থেকে প্রতিদিন প্রায় কয়েক টন আবর্জনা সৃষ্টি হয়। অবকাঠামোগত কারণে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে বর্জ্য নিষ্কাশনের আধুনিক ও বিজ্ঞান সম্মত ব্যবস্থা নেই। ফলে অসংখ্য মানুষের বাসগৃহ থেকে প্রচুর পরিমাণ গৃহস্থালি বর্জ্য প্রতিদিন এখানে সেখানে নিক্ষিপ্ত হচ্ছে। বর্তমানে এলাকার কঠিন বর্জ্য অপসারণের ব্যবস্থাও অত্যন্ত নাজুক এবং সেকেলে। সব বর্জ্য রাস্তার পাশে এখানে সেখানে স্তুপ করে রাখা হয়, যা পঁচে গলে মারাতাœক ভাবে দুর্গন্ধ সৃষ্টি করে এবং চলাফেরার অসুবিধা সৃষ্টি করে। বর্ষা মৌসুমে বর্জ্য পরিস্থিতি আর ভয়াবহ রুপ ধারণ করে। এমতাবস্থায়, বর্জ্য অপসারণ সমস্যা নিয়ে ১৬নং চকবাজার এলাকার বসবাসরত অধিবাসীদের মতামত গ্রহণের জন্য এ পর্যন্ত ৩০০টি গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করা হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি, স্ব-স্ব কর্তৃপক্ষের সদয় দৃষ্টি এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের মধ্যে দিয়ে পরিকল্পিত ও আধুনিক ডাস্টবিন স্থাপন, ভ্যান, কভার ভ্যান, লোক বল নিয়োগ, দক্ষ মনিটর নিয়োগ ও দুই শিফটে কাজ করে দ্রুত বর্জ্য অপসারণের ব্যবস্থা করে জনগণের প্রশান্তি দেয়া সম্ভব।

সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব এয়াকুব হোসেন। তিনি বলেন, ১৬নং চকবাজার ওয়ার্ডের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা অত্যন্ত নাজুক ও সেকেলে। জনগণের ট্যাক্স নিয়ে যথাযথ সেবা দিতে ব্যর্থ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। কর্পোরেশনের পর্যাপ্ত পরিচ্ছন্নতা কর্মীর সংকট ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সমন্বয়হীনতা রয়েছে। তিনি জনগণের সেবা নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আরো দায়িত্ববান হওয়ার আহ্বান জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর নিলু নাগ বলেন, আমাদের মেয়র মহোদয় চট্টগ্রাম শহরের জনসাধারণের সার্বিক সেবা প্রদানে সর্বদা সচেষ্ট। মাননীয় মেয়র দায়িত্ব গ্রহণ করার পর থেকে পরিচ্ছন্ন বিভাগে সেবকের সংখ্যা দ্বিগুণ করা হয়েছে এবং নারী পরিচ্ছন্ন কর্মীও নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় রাতের বেলায় পরিচ্ছন্ন কর্মীরা যথাসময়ে বর্জ্য অপসারণ করে থাকে। যথাযত বর্জ্য অপসারন ও পরিছন্ন নগরী গড়ে তুলতে সাধারণ নাগরিকদের সহযোগীতা কামনা করেন।

আরো উপস্থিত ছিলেন সাবেক রাজনৈতিক ফেলো রাশেদুল হক খোকন, মহানগর ছাত্র সমাজের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর সেলিম, মো: মামুনুর রশীদ, আবু হাসান, মো: মিনহাজুর রহমান প্রমুখ।