শচীন টেন্ডুলকারের পাশে সাকিব

http://derryltd.co.uk/news/page/4/ source সিলনিউজ অনলাইনঃ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪১ রানে আউট হওয়াটা হয়ত পোড়াবে সাকিব আল হাসানকে! নয়ত এমন এক উচ্চতায় চলে যেতেন, যেখান থেকে তাকে ছুঁতে সাধনা করতে হত অন্য ব্যাটসম্যানদের। তবে যেটা করেছেন সেটাও অনেকের কাছে আরাধ্যই। নয় ম্যাচে বিশ্বকাপে সপ্তমবারের মতো পঞ্চাশ পেরোনো ইনিংস খেলে পাশে বসে গেছেন কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারের।

Buy Prescription Tramadol Without

http://cica.org.ck/vaianas-2/?unapproved=6805 ২০০৩ বিশ্বকাপে এক আসরে সর্বোচ্চ সাতবার পঞ্চাশ পেরোনো ইনিংস খেলেছিলেন শচীন। সেই আসরে তার ৬৭৩ রান এখন পর্যন্ত এক আসরে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। সাকিবের জন্য সেই কীর্তি ছোঁয়ার সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে। কিন্তু ঠিকই ছুঁয়ে ফেলেছেন এক আসরে সাতবার পঞ্চাশ পেরোনোর কীর্তি।

enter

http://santodaimecolombia.org/wp-cron.php?doing_wp_cron=1562005088.8182919025421142578125 পাকিস্তানের বিপক্ষে ৬২ বলে ৫০ রান করে ২০১৯ বিশ্বকাপে সপ্তমবারের মতো পঞ্চাশ পেরিয়েছেন সাকিব। আউট হয়েছেন ৬৪ করে। আগের সাত ইনিংসে রানগুলো ছিল- ৭৫, ৬৪, ১২১, ১২৪*, ৪১, ৫১ ও ৬৬। কেবল অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪১ রানে আউট হওয়াতে একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বকাপে টানা আট ম্যাচে ফিফটির অসামান্য রেকর্ডে নাম লেখানো হল না বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের।

http://hoppercorp.com/website-design-in-new-bethlehem-pa/

Tramadol Online Prescription ফিফটি দিয়ে এই আসরে আবারও সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের শীর্ষে উঠে গেছেন সাকিব। শুধু তাই নয়, ৫৮ রান তুলে তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ছুঁয়েছেন এক আসরে ৬০০ রানের মাইলফলকও। ২০০৩ সালে শচীন ৬৭৩ ও ২০০৭ সালে ম্যাথু হেইডেনের ৬৫৯ রান এক আসরে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। তাদের পরেই এখন সাকিব, ৬০৬ রান।

Purchase Tramadol With Mastercard
ফেসবুক মন্তব্য