আশফাক আহমদের নৌকার পক্ষে মাঠে নামলেন সাবেক অর্থমন্ত্রী মুহিত

মো. মতিউর রহমানঃঃ- আসন্ন সিলেট সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী (বর্তমান চেয়ারম্যান) আলহাজ্ব আশফাক আহমদের পক্ষে মাঠে নামলেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।

আজ ১৪ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুরে খাদিমনগর ইউনিয়নের বড়শালা বাজারে এক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. তারা মিয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল মালিকের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, সিলেট সদরে এখনও আশফাক আহমদের মত সফল চেয়ারম্যানের প্রয়োজন আছে। বিগত ১০ বছরে এ উপজেলায় অস্বাভাবি ভাবে উন্নয়ন হয়েছে। আশফাক আমার কাছে যে আবদার করেছে সে আবদার আমি শতভাগ পুরণ করেছি। সেটা রাস্তাঘাট বলেন আর শিক্ষা, চিকিৎসা কিংবা বিদ্যূৎ সহ সব ক্ষেত্রেই উন্নয়ন করেছি। যেহেতু এমপি হওয়ার পর আমার ওপর মন্ত্রনালয়ের দায়ীত্ব থাকায় আমি ব্যস্ততার কারনে অনেক উন্নয়ন কর্মকান্ড আশফাককেই তদারকী করাতে আমি নির্দেশ দিয়েছিলাম। তার দক্ষতা ও কর্মতৎপরতা খুবই ভালই ছিল। সে ১০ বছরে সদর উপজেলায় অনেক উন্নয়ন করেছে এ জন্য আওয়ামী লীগের পক্ষথেকে তাকেই মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। উন্নয়নের স্বার্থে আগামী ১৮ মার্চ নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে পুনরায় তাকে নির্বাচিত করে উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখুন। আমি সদর উপজেলার সকল জনগনের প্রতি এ আহবান জানাই।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাখেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এডভোকেট রাজ উদ্দীন, যুগ্ম সম্পাদক বিজিত চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, বাফুফের কেন্দ্রীয় সদস্য মাহি উদ্দীন আহমদ সেলিম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান বাদশা, সাধারণ সম্পাদক ও কান্দিগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নিজাম উদ্দিন, খাদিমপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আফছর আহমদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার মির্জা জামাল পাশা, সিটি কাউন্সিলর সালেহ আহমদ সেলিম, মোগলাগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সামছুল ইসলাম টুনু, খাদিমনগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, মহানগর যুব লীগের আহবায়ক আলম খাঁন মুক্তি, উপজেলা আওয়ামী লীগের তথ্য বিষয়ক সম্পাদক এইচ এম মালিক ইমন, জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি মো. মকসুদ আহমদ, মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা জাবেদ সিরাজ, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রায়হান আহমদ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি ফারুক আহমদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য মস্তফা উল্লা, আওয়ামী লীগ নেতা জালাল উদ্দীন, আব্দুস সালাম, মুক্তার হোসেন, জুনেদ সরকার, সদর উপজেলা যুবলীগ নেতা মো. আরিফ আহমদ সুমন, ইকলাল আহমদ, জয়নাল আবেদীন, হাজী হেলাল আহমদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো. আনছার আলী মেম্বার, আবুল কালাম আজাদ, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা মানিক মিয়া, আব্দুল গনি, আব্দুল কাদির ভাসানী, জেলা ছাত্রলীগ সাবেক উপ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা ইরণ শাহ প্রমুখ।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx