সমাজের অসহায় ও দুস্থ মানুষের সেবাদানে সমিতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ : এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম

সিলনিউজ২৪.কমঃ সিলেটের জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেছেন, মানুষের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে জালালাবাদ অন্ধ কল্যাণ সমিতি। সমিতির প্রত্যেক দায়িত্বশীল এবং সদস্যরা কাজের ব্যাপারে অত্যন্ত আন্তরিক। যার কারণে সমিতির দীর্ঘ অগ্রযাত্রায় সবাই রাখছেন উল্লেখযোগ্য ভূমিকা। অসহায় এবং দুস্থ মানুষের চোখের অপারেশন তথা উন্নত সেবা প্রদানে সমিতি প্রতিশ্রুতিদ্ধ ।জালালাবাদ অন্ধ কল্যাণ সমিতির দ্বিবার্ষিক সাধারণ সভা ২০১৮ ও২০১৯-২০ বর্ষের কার্যকরী পরিষদের নির্বাচন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

গতকাল শনিবার (২৬ জানুয়ারি) বিকালে মেজরটিলাস্থ জালালাবাদ চক্ষু হাসপাতালের সমিতির সম্মেলন কক্ষে এই সভার আয়োজন করাহয়। সভায় ২০১৭ ও ২০১৮ সালের বার্ষিক কার্যবিবরণী পেশ করেন  সমিতির সাধারণ সম্পাদক মুফতি মোহাম্মদ হাসান এবং ২০১৮সালের আয়-ব্যয়ের পরীক্ষিত হিসাব পেশ করেন সমিতির কোষাধ্যক্ষ হাদি নেহাল আহমদ চৌধুরী। এছাড়া সভার প্রথম পর্বে ২০১৯সালের প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করেন সাধারণ সম্পাদক মুফতি  মোহাম্মদ হাসান। এসময় সমিতির অডিটর নিয়োগ সংক্রান্ত আলোচনা ও করা হয়। পাশাপাশি সমিতির উন্নয়ন এবং অসহায়, দুস্থ মানুষদের মধ্যে স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছিয়ে দেবার ব্যাপারেও গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করা হয়। সভার দ্বিতীয় পর্বে সমিতির ২০১৯-২০ সালের কার্যকরী পরিষদের নির্বাচন উপলক্ষে সভার শুরু হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন সমিতির নির্বাচন কমিশন-এর চেয়ারম্যান এডভোকেট এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন। পরে২০১৯-২০ সালের কার্যকরী পরিষদের সদস্যদের নাম ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশনার। ২০১৯-২০ সালের কার্যকরী পরিষদে পদাধিকার বলে জেলা প্রশাসককে সভাপতি, জেলা প্রশাসক মনোনীত প্রথম সহ সভাপতি, সহ সভাপতি এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী, ব্যারিস্টার মোহাম্মদ আরশ আলী, সাধারণ সম্পাদক মুফতি মোহাম্মদ হাসান, যুগ্ম সম্পাদক প্রকৌশলী মোহাম্মদ আইয়ুব আলী, মোহাম্মদ আব্দুল গণি, কোষাধ্যক্ষ হাদি নেহাল আহমদ চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আব্দুল জব্বার জলিল, প্রচার সম্পাদক আফতাব চৌধুরী, এম. মুহিবুর রহমান,এম এ আহাদ, এম এ করিম চৌধুরী, অধ্যাপক ডা. এম এ সালাম, অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মারুফ আলী, অধ্যাপক ডা. এ এইচ এম এনায়েত হোসেন, এডভোকেট দেওয়ান গোলাম রব্বানী চৌধুরী, এডভোকেট মো. সিদ্দিকুর রহমান, শফিউল আলম চৌধুরী, প্রকৌশলী মো. শুয়েব আহমদ মতিন, তেহসিন চৌধুরীকে  কার্যকরী পরিষদের সদস্য ঘোষণা করেন। সভায় সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও সমিতির সহ সভাপতি সন্ধীপ কুমার সিংহসহ সমিতির অন্যান্য সদস্যরা উন্মুক্ত আলোচনা অংশগ্রহণ করেন।শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জালালাবাদ চক্ষু হাসপাতালের অফিস সহকারী হাফিজ এনাম উদ্দিন। নির্বাচন কমিশনের সদস্য হিসেবে এডভোকেট মোহাম্মদ বদরুল হোসেন,সৈয়দ আবু সাদেক দায়িত্ব পালন করেন। সভায় ছয়েফ উদ্দিন চৌধুরী, মো. সিদ্দিকুর রহমান, আবুল ফজল, মোহাম্মদ রেজা চৌধুরী, এডভোকেট সৈয়দ কাওসার আহমদ, শামসুল আলম, এ কেআজাদ খান, লোকমান আহমদ, জুবায়ের আহমদ চৌধুরীসহ সমিতির কার্যকরী পরিষদের সদস্য, জীবন ও আজীবন সদস্য এবং জালালাবাদ চক্ষু হাসপাতালের কর্মকর্তা-র্কমচারীরা উপস্থিতছিলেন।

ফেসবুক মন্তব্য