বিশ্বাস ঘাতকদের ঠাই জাতীয়তাবাদী দলে হবে না : আরিফুল হক চৌধুরী

সিলনিউজ ডেস্কঃ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা, সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮৩ তম জন্মদিন নানা আয়োজনে পালিত হয়েছে। শনিবার রাত সাড়ে ৮টায় নগরীর কুমারপাড়াস্থ সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সদস্য আরিফুল হক চৌধুরীর বাসায় এক আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-ক্ষুদ্র ও ঋণ বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে আয়োজিত মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, বিশ্বাস ঘাতকদের ঠাই জাতীয়তাবাদী দলে হবে না। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শে আদর্শিত হয়ে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দলের জন্য কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, শহীদ জিয়া ছিলেন এদেশের বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রবর্তক। শহীদ জিয়ার নেতৃত্বে বাংলাদেশ তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী একটি দেশে পরিনত হয়েছিল। কিন্তু দেশী বিদেশী স্বড়যন্ত্রকারীরা তাকে নির্মমভাবে হত্যা করেছিল। তিনি আরো বলেন, মিথ্যা অভিযোগে সাজা দিয়ে তিন তিনবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে দীর্ঘ এক বছর ধরে কারাগারে রাখা হয়েছে। দেশ নায়ক তারেক রহমান এক ধরনের নির্বাসনে রয়েছেন। তিনি বলেন, অতীতের অভিজ্ঞতা থেকে বিএনপিকে তৃনমূল পর্যায়ে পূর্ণগঠন করে জনগনের ভোটাধিকার প্রতিষ্টার আন্দোলনে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে সকল ভেদাভেদ ভূলে শরিক হওয়ার আহবান জানান। এর পর শহীদ জিয়ার রুহের মাগফেরাত কামনা করে মিলাদ ও দোওয়া পরিচালনা করা হয়।

মাহফিলে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য ও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি সালেহ আহমদ খসরু, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মিফতা সিদ্দিকী, মহানগর বিএনপির যুগ্মসম্পাদক শামীম সিদ্দিকী, এমদাদ হোসেন চৌধুরী, দিনার খান হাসু, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ তৌফিকুল হাদী, জাসাস জেলা সভাপতি জসিম উদ্দিন, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সাদিকুর রহমান সাদিক, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ সভাপতি মাহবুবুল হক চৌধুরী, জেলা বিএনপির সহ প্রকাশনা সম্পাদক ছালিক আহমদ চৌধুরী, জেলা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক সুরমান আলী, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইউনুস মিয়া, জাসাস সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আহমদ রানু, কৃষক দলের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল মান্নান পুতুল, জেলা বিএনপির সহ ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক ফখরুল ইসলাম চৌধুরী, রফিকুল বারী নোমান, শফিকুর রহমান টুটুল, সৈয়দ ইমরান হোসেন, আবুল হাসেম জাকারিয়া, এখলাছুর রহমান মুন্না, সুহেল আহমদ, সুচিত্র চৌধুরী বাবলু, আশরাফ উদ্দিন রুবেল, সুহেল রানা, সুহেল ইবনে রাজা, আব্দুল আহাদ সুমন, শাকিলুর রহমান, এডভোকেট আব্দল্লাহ হেলাল, সেলিম আহমদ, আফজল হোসেন, তারেক আহমদ চৌধুরী, শাহিল মিয়া, সায়েক আহমদ, ইমদাদুল হক সামু, চৌধুরী সুবহান আজাদ, ইমন আহমদ, সানওয়ার হোসেন সজিব, শিপলু আহমদ, ফয়সল আহমদ, নবেল হোসেন সাঈদ প্রমুখ।

ফেসবুক মন্তব্য