নৈতিক পরাজয় ঢাকতে আ. লীগের বিজয় উৎসব : মির্জা ফখরুল

সিলনিউজ ডেস্কঃ ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে নৈতিক পরাজয় ঢাকতেই আওয়ামী লীগ বিজয় উৎসবের আয়োজন করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, এ বিজয় উৎসবের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে ঘোরাতে চায়। এ ছাড়া বিএনপির সঙ্গে শরিক দল ও ঐক্যফ্রন্টের কোনো টানাপোড়েনে নেই বলেও তিনি জানিয়েছেন।

সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে আজ শনিবার এসব কথা বলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর চন্দ্রিমা উদ্যানে তাঁর কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান মির্জা ফখরুলের নেতৃত্বে বিএনপির নেতা–কর্মীরা। শ্রদ্ধা জানানোর পর সেখানে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০–দলীয় জোট এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে দলের কোনো টানাপোড়েন নেই। এ ব্যাপারে দলের বিরোধী পক্ষ থেকে যা বলা হচ্ছে, তা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

মহাসচিব বলেন, ‘৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগেরই পরাজয় হয়েছে। কীভাবে ভোট ডাকাতি হয়েছে, তা দেশের মানুষ দেখেছে। এই ভোট ডাকাতির পর বিজয় উৎসব করা বা আনন্দ করার কোনো মানে হয় না। নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৈতিক পরাজয় ঢাকতে এবং জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে ঘোরাতে আওয়ামী লীগ এ বিজয় উৎসবের আয়োজন করেছে।’

এ মুহূর্তে বিএনপির করণীয় কী হবে—সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি কর্মসূচির মধ্যেই আছে। সাধারণ মানুষ ৩০ ডিসেম্বরের ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছে। মানুষকেও তার জায়গা থেকে প্রতিহত করতে হবে। বিএনপি এই জোচ্চুরি নির্বাচনের বিরুদ্ধে কর্মসূচি পালন করবে। দলীয় ফোরামে আলোচনা করে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

সে সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমেদ, খন্দকার মোশাররফ হোসেনসহ কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে দুই দিনের কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি। জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারতের মাধ্যমে সেই কর্মসূচি শুরু করা হয়েছে।

ফেসবুক মন্তব্য