নিউজটি পড়া হয়েছে 130

মনোনয়ন বঞ্চিত মিলন নিজে কেঁদে কর্মীদের কাঁদালেন

সিলনিউজ ডেস্ক: সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন বলেছেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও গণতন্ত্রের মুক্তির স্বার্থে দলীয় মনোনয়ন কেন সব ধরনের ত্যাগ স্বীকার করতে তিনি প্রস্তুত। এ সময় আবেগাপ্লুত হয়ে তাকে কান্নায় ভেঙ্গে পড়তে দেখা গেছে।

আজ শনিবার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে ছাতক শহরের দলীয় কার্যালয়ের সামনে ছাতক-দোয়ারা বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় আকস্মিকভাবে উপস্থিত হয়ে বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি এসব কথা বলেন।

দলের সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধার সাথে মেনে নিয়ে দেশে একটি গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠায় ধানের শীষের বিজয় নিশ্চিত করতে দলীয় নেতা-কর্মীদের প্রতি আহবান জানান মনোনয়নবঞ্চিত মিলন।

সভায় মিলন কান্নায় ভেঙে পড়লে সভায় উপস্থিত নেতা-কর্মীরাও কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এক পর্যায়ে বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা দলীয় কার্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করলে কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন মিছিল না করার জন্য তাদের বাধা প্রদান করেন। অবশেষে নিরুপায় হয়ে তিনি রাস্তায় শুয়ে পড়ে মিছিলের বাধা হয়ে দাঁড়ান।

পৌর বিএনপির আহবায়ক সৈয়দ তিতুমিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি আব্দুর রহমান, দোয়ারা উপজেলা বিএনপির আহবায়ক সামছুল হক নমু, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম আম্বিয়া মাজকুর পাভেল, দোয়ারা উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আলতাফুর রহমান খসরু, হারুনুর রশীদ, ছাতক উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক নজরুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক হিফজুল বারী শিমুল, ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম জুয়েল, আলহাজ্ব আব্দুল বারি, পৌর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক সামছুর রহমান সামছু, আব্দুল আওয়াল, পৌর কাউন্সিলর জসিম উদ্দিন সুমেন, বিএনপি নেতা শাহ শফিকুল আলম মতি, লায়েক শাহ, সামছুর রহমান বাবুল, কাজী মাওলানা আব্দুস সামাদ, সাদিকুর রহমান, আলী আশরাফ তাহিদ, দিল হোসেন, নাজমুল হোসেন, ছাদিকুর রহমান, আজর আলী মেম্বার, আতাউর রহমান এমরান, মেহেদী হাসান সোনা মিয়া, আবুল হোসেন, খায়ের উদ্দিন, ফয়জুর রহমান, শফি উদ্দিন, কয়েস আহমদ, জেইউ আহার, মনির মেম্বার, সুলেমান মিয়া, জাহেদুল ইসলাম আহবাব, ফজল উদ্দিন, সাবেক চেয়ারম্যান কুতুব উদ্দিন, তাজুল ইসলাম, নুরুল ইসলাম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি বাকি বিল্লাহ, জেলা যুবদলের সহসভাপতি সাজ্জাদ হোসেন, জেলা যুবদলের সহসাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মমিন, যুগ্ম সম্পাদক জহির উদ্দিন, ইকবাল হোসেন ঝুনু, যুবদল নেতা এমরান আহমদ, মাওলানা জিয়াউর রহমান, কয়ছর আহমদ, ফখরুল আলম, কুতুব উদ্দিন, নেয়ামত উল্লাহ, লিজন তালুকদার, উপজেলা ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক ফয়জুল আহমদ পাভেল, সহ-সভাপতি আরিফ বিল্লাহ মকবুল হোসেন, জাহাঙ্গির আলম, এনাম আহমদ, যুগ্ম সম্পাদক ইজাজুল হক রনি, পৌর ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক আব্দুল মুনিম মামুন, ছাত্রদল নেতা সাজু আহমদ, সৈয়দ মেহেদী, সুজন ইমদাদ কানন, ফয়ছল আহমদ, রেজাউল করিম রিপন, ইমন আহমদ, রায়হান আহমদ, আব্দুল্লাহ সনি, মুহিত আহমদ, রাহেল আহমদ, স্বাচ্ছা আবেদিনসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx