নিজ দেশে ফিরতে চায় না রোহিঙ্গারা।

সিলনিউজ অনলাইনঃ নিজ দেশে ফিরে যেথে চায় না রোহিঙ্গারা। নিরাপত্তা ও নাগরিকত্ব না পাওয়ার শঙ্কায় কেউ স্বেচ্ছায় মায়ানমারে যেতে রাজি নয়। এদিকে তালিকাভুক্ত রোহিঙ্গাদের আজ (বৃহস্পতিবার) প্রত্যাবাসনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে বাংলাদেশ।

দুপুরে টেকনাফের উঞ্চিপ্রাং ক্যাম্পে বিক্ষোভ করেন হাজারো রোহিঙ্গা। এ অবস্থায় অনিশ্চয়তার মুখে পড়লো রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া। সবকিছু ঠিকঠাক। তালিকাভুক্ত রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোর জন্যে সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে বাংলাদেশ। উখিয়ার আমতলী এবং টেকনাফের উনচিপ্রাংয়ে রাখা হয়েছিল বাসও।

এ সময় শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম বলেন, ‘আমরা ঘুমধুম পথ ব্যবহার করবো বলে আগেই সিদ্ধান্ত হয়েছে। তাদের তিন দিনের রেশনসহ সব কিছু আমরা প্রস্তুত করেছি। যারা স্বেচ্ছায় আসতে চান তাদের মর্যাদার সঙ্গে ফেরত পাঠানো হবে।

হঠাৎ করে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। মিছিল সমাবেশে প্রকম্পিত করে তোলে পুরো ক্যাম্প এলাকা। ৫ দফা দাবিতে অনড় থাকে তারা। নিজ দেশে ফেরত যেতে অস্বীকার জানিয়েছে তারা।

রোহিঙ্গা শরণার্থীরা বলেন, ‘আমাদের যে ৫ দাবি রয়েছে। তা পূরণ হলেই দেশে ফিরে যাবো। আমরা সঠিক নিরাপত্তা চাই। আমরা ওদের বিশ্বাস করি না। মিয়ানমারের নাগরিক হিসেবে পরিচিতি দেয়ার জন্যে জাতিসংঘকে অনুরোধ জানায়। ৫ দফা দাবিতে অনড় থেকে তারা ক্যাম্পে ক্রমাগত মিছিল সমাবেশ করছে।

তথ্যসুত্রঃ সময় টিভি

ফেসবুক মন্তব্য
xxx