নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে পুলিশের গাড়ীতে আগুন।

সিলনিউজ অনলাইনঃ রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। আজ বুধবার (১৪ নভেম্বর) দুপুর ১টার দিকে এ সংঘর্ষ শুরু হয়।

দুপুর ১টা ২০ মিনিটের দিকে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে অবস্থানরত পুলিশের দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেন তারা। এসময় তারা পুলিশের অন্য আরেকটি গাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর করেন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ারশেল, রাবার বুলেট ও শটগানের ফাঁকা গুলি ছুঁড়ছে পুলিশ। এদিকে, বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশের গাড়িসহ প্রায় ১০টি গাড়ি ভাঙচুর করেছে। নয়াপল্টনে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে গোটা নয়াপল্টন এলাকা।

নয়াপল্টনে গাড়ি চলাচল বন্ধ রয়েছে। ইটপাটকেল নিক্ষেপ করছে বিএনপির বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। পুলিশের গাড়িসহ অন্যান্য গাড়ি ভাঙচুরের সময় গাড়ির উপরে উঠে উল্লাস করতে দেখা যায় নেতাকর্মীদের।

বিএনপির নেতাকর্মীরা জানান, মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের জন্য সকাল থেকে জড়ো হওয়া নেতাকর্মীদের লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। এতে কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ১০টা থেকে নেতাকর্মীরা জড়ো হতে থাকে। এক পর্যায়ে নেতাকর্মীদের ভিড়ে রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়। এসময় পুলিশ তাদের সরিয়ে দিতে গেলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। জমায়েত ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ টিয়ারশেল, রাবার বুলেট ছোড়ে।  নয়াপল্টন কার্যালয়ের সামনের রাস্তা পুরো ফাঁকা হয়ে গেছে। রাস্তায় অবস্থান নিয়েছে পুলিশ।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন ফরম বিক্রি কেন্দ্র করে সড়কে বিএনপি নেতাকর্মীরা ভিড় করছিলেন। এতে সড়কে যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছিল। পুলিশ সড়ক খালি করার চেষ্টা করছিল। এ থেকেই ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার সূত্রপাত।

সূত্রঃ সময় টিভি 

ফেসবুক মন্তব্য
xxx