টিলাগড় ইকোপার্কের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন, দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় (ভিডিও)

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ অবশেষে সিলেটে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হলো বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ কেন্দ্রের। এটি দেশের তৃতীয় সরকারি চিড়িয়াখানা। 

২রা নভেম্বর (শুক্রবার) বিকেল চারটায় সিলেট নগরীর টিলাগড় এলাকায় অবস্থিত টিলাগড় ইকোপার্ক ফিতা কেটে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ, সিলেট বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ, খাদিমপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান এডভোকেট আফসর আহমদ, কিউভিস টেকনোলোজি (ইউকে) কান্ট্রি ডিরেক্টর কায়েস চৌধুরী, সিলেট মহানগর যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সিনিয়র সদস্য সুবেদুর রহমান মুন্না, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি পংকজ পুরকায়স্থ প্রমুখ। 

উদ্বোধনের পর পার্কটি খুলে দেওয়া হয় দর্শনার্থীদের জন্য। সববয়সী মানুষের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়। প্রতিটি প্রাণীর খাচার সামনে মহিলা আর বাচ্চাদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। দিনটি সাপ্তাহিক ছুটি হওয়ায় অভিভাবকরা সন্তানদের নিয়ে আসেন এখানে, এছাড়াও বিভিন্ন বয়সী মানুষও ছুটে আসেন সিলেটের প্রথম এই চিড়িয়াখানা দেখতে। 

টিলাগড় ইকোপার্কের চিড়িয়াখানায় ইতিমধ্যে দুটি জেব্রা, হরিণসহ ৯ প্রজাতির ৫৮টি প্রাণী আনা হয়েছে। বিভিন্ন দেশ থেকে বিলুপ্ত প্রজাতির নানা ধরনের প্রাণী আনার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। যার মধ্যে থাকবে সিংহ, শ্লথবিয়ার, হনুমান, বেজী, বনরুই, বাঘদাস, বনবিড়াল, শিয়াল, খেকশিয়াল, গন্ডার, এশীয় হাতি, পরিযায়ী পাখি, জলজ পাখি, বনছাগল, বিভিন্ন প্রজাতির বানর, কালো ভাল্লুক, মিঠা পানির কুমির, নীল গাই, জলহস্তী ইত্যাদি। নেপাল, দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া ও সৌদি আরব থেকে বেশির ভাগ প্রাণী নিয়ে আসার পরিকল্পনার কথা জানান কর্মকর্তারা।এছাড়া, এখানে প্রাণীদের স্বাস্থ্য ও নানা ধরণের সেবার জন্য আধুনিকমানের উপকরণ কেনা হবে।

টিলাগড় ইকোপার্ক উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে পর্যটন নগরী সিলেটের বিনোদনে নতুন মাত্রা যোগ  হলো।  সিলেট বিভাগ এবং দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে বেড়াতে আসা পর্যটকদের বিনোদনের জন্য এই ইকোপার্ক নতুন মাত্রা যোগ করবে বলে আশাবাদী সংশ্লিষ্টরা। ১১২ একর জায়গাজুড়ে টিলাগড় ইকোপার্কটি নির্মিত। 

ইকোপার্কটি সপ্তাহের সাতদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল সাড়ে চারটা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। তবে আগামী ফেব্রুয়ারী থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময়ে সকাল ৯টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকবে। পার্কে প্রবেশ ফি রাখা হয়েছে ১০টাকা। 

সিলনিউজ/আইএইচকেকে/৩নভেম্বর২০১৮ 

ফেসবুক মন্তব্য
xxx