আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে মানুষের উন্নয়নে কাজ করে : প্রধানমন্ত্রী

সিলনিউজ অনলাইনঃ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে নির্যাতন, অত্যাচার করে না। মানুষের উন্নয়নে কাজ করে। আজ (শুক্রবার) বিকেলে ময়মনসিংহে সার্কিট হাউজ মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় একথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এরআগে, ময়মনসিংহ বিভাগের চার জেলায় ১৯৫টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন তিনি।

আজ শুক্রবার (২ নভেম্বর) বিকেল চারটার কিছু আগে প্রধানমন্ত্রী ময়মনসিংহ সার্কিট হাউজ মাঠে এসে পৌঁছান এ বিভাগের ৪টি জেলার ১০১টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ৯৪টি প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। পরে সার্কিট হাউজ মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় যোগ দেন দলের সভাপতি শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে কারো ওপর অত্যাচার করে না। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে কারো ওপর নির্যাতন করে না। আওয়ামী লীগ উন্নয়ন করে। আওয়ামী লীগ করে মানুষের কল্যাণ।

তিনি বলেন, ‘খুন, হত্যা, দখল, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, বাংলাভাই সৃষ্টি আর মানি লন্ডারিং- এই ছিল বিএনপির কাজ। সরকার ছিল কী, সেই সময় হাওয়া ভবন। এই হাওয়া ভবনের খাওয়া মিটাতে গিয়ে দেশের কোনো উন্নয়ন নাই।’ জাতির জনককে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যার কথা স্মরণ করে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, ‘মানুষ তার আপনজনকে হত্যার বিচার চাইতে পারে, আমাদের সেই বিচার চাওয়ার সুযোগও দেওয়া হয়নি। ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ জারি করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বন্ধ করতে চেয়েছিল জিয়াউর রহমান।

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের অবর্ণনীয় নির্যাতন করা হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের হত্যা করে। এই ময়মনসিংহে তারা পাকিস্তানি বাহিনীর মতো অত্যাচার করেছিল।’ ২০০১ সালে আওয়ামী লীগকে ষড়যন্ত্র করে নির্বাচনে হারানো হয় বলেও অভিযোগ করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘তারপর ২০০৮ সাল পর্যন্ত এ দেশকে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল।’ এসময় আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা বিগত দুই মেয়াদী আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের নানা স্লোগান দিতে থাকেন তারা। এর আগে সকাল থেকে মিছিল নিয়ে বিভিন্ন জেলা থেকে সভাস্থলে আসতে থাকে নেতাহকর্মীরা। দুপুরের মধ্যেই পুরো জনসভাস্থল পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে।

সুত্রঃ সময় টিভি

ফেসবুক মন্তব্য
xxx