পরিবহণ ধর্মঘট নিয়ে কোন মন্তব্য করলেন না শাজাহান খান

সিলনিউজ অনলাইন ডেস্কঃ পরিবহন শ্রমিক সংগঠনগুলোর শীর্ষ ফোরাম বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি নৌমন্ত্রী শাজাহান খান, পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘটে সারা দেশের মানুষ চরম ভোগান্তিতে পড়লেও এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি নন। 

রোববার সচিবালয়ে নিজের দপ্তর থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকরা পরিবহন শ্রমিকদের কর্মসূচির বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

এরপরও সাংবাদিকরা বার বার প্রশ্ন করতে থাকলে মন্ত্রী বলেন, “কোন মন্তব্য নয়।”

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের ডাকেই সড়ক পরিবহন আইনের কয়েকটি ধারা সংশোধনসহ আট দফা দাবিতে রোববার সকাল থেকে ৪৮ ঘণ্টার ‘কর্মবিরতি’ চলছে সারা দেশে।

সারা দেশে দূরপাল্লার বাস ও পণ্যবাহী যান চলাচল বন্ধ রাখার পাশাপাশি ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বড় শহরগুলোতে নগর পরিবহন বন্ধ রাখায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ। বিভিন্ন স্থানে ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচলেও বাধা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

গত ২৯ জুলাই রাজধানীতে বাস চাপায় দুই স্কুল শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর সারা দেশে শিক্ষার্থীদের নজিরবিহীন আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে সরকার দীর্ঘদিন ধরে ঝুলিয়ে রাখা সড়ক পরিবহন আইন পাস করে।

কিন্তু ওই আইনের কয়েকটি ধারা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে সেগুলো বাতিল করার দাবি তুলেছে পরিবহন শ্রমিকরা।

তাদের দাবিগুলো হলো- সড়ক দুর্ঘটনার সব মামলা জামিনযোগ্য করা, দুর্ঘটনায় চালকের পাঁচ লাখ টাকা জরিমানার বিধান বাতিল, চালকের শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণির পরিবর্তে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত করা, ৩০২ ধারার মামলার তদন্ত কমিটিতে শ্রমিক প্রতিনিধি রাখা, পুলিশি হয়রানি বন্ধ, ওয়ে স্কেলে জরিমানা কমানো ও শাস্তি বাতিল এবং গাড়ি নিবন্ধনের সময় শ্রমিক ফেডারেশন প্রতিনিধির প্রত্যয়ন বাধ্যতামূলক করা।

তবে নির্বাচনের আগে এই সময়ে আইন পরিবর্তন করে শ্রমিকদের দাবি মেনে নেওয়া সম্ভব নয় জানিয়ে ধর্মঘট প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

পরিবহন শ্রমিকদের ধৈর্য্য ধরার পরামর্শ তিনি বলেন, “তাদের অপেক্ষা করতে হবে। এর মধ্যে কোনো ন্যায়সংগত বিষয় থাকলে পরে আলোচনার মাধ্যমে বিবেচনা করা হবে।”

ফেসবুক মন্তব্য
xxx