‘আবারো প্রধানমন্ত্রী হবেন শেখ হাসিনা, বিশ্বনেতাদের আশাবাদ’

সিলনিউজ২৪.কমঃ গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক হবে বলে আশাবাদ জানিয়েছেন বিশ্ব নেতারা। তারা বলছেন, উন্নয়নের এই ধারা আগামীতেও ধরে রাখতে হবে। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের পার্শ্ববৈঠকে বিশ্বনেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিভিন্ন দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে এমন আশাবাদ উঠে আসে। বুধবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় নিউইয়র্কে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক। তিনি বলেন, বিশ্ব নেতারা আশা করেন ‘টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার প্রধান হবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’।

জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি কাটাতে প্যারিস চুক্তির বাস্তবায়ন নিয়ে বুধবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসেও উপস্থিত ছিলেন।

সংলাপে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সৃষ্ট সমস্যা কাটিয়ে উঠতে সহায়তার প্রয়োজন। বাংলাদেশ সরকার জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় জিডিপির এক শতাংশের বেশি বিনিয়োগ করছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। এছাড়া বাংলাদেশ সরকারের নেয়া স্বল্প কার্বন নিক্ষেপ কর্মসূচি তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

পরে, পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী জাতিসংঘের সদর দফতরে ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক অ্যান্থনি লেকের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। এরপর স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে তিনটায় জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাই কমিশনারের সঙ্গে বৈঠকে করেন শেখ হাসিনা। এছাড়া এস্তোনিয়ার রাষ্ট্রপতি টমাস হেনড্রিক ইলভাসের সঙ্গেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সৌজন্য সাক্ষাত অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় দু’দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন তারা।

বুধবার ( ২৬ সেপ্টেম্বর) বিকেল ইউরোপীয় ইউনিয়নের নিরাপত্তা ও নীতিনির্ধারণী বিষয়ক উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধির সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী। দিনের সবশেষ সূচিতে জাতিসংঘের মহাসচিবের মিয়ানমার বিষয়ক বিশেষ দূত ক্রিস্টিন বুরগেনার সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। এ সময় তারা রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া নিয়ে কথা বলেন।

পরে, বুধবার পর্যন্ত জাতিসংঘের অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর অংশ নেয়া নানা কর্মসূচির বিভিন্ন দিক নিয়ে নিউইয়র্কের সংবাদ সম্মেলন করেন পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক। এ সময় তিনি জানান, বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অর্জনের প্রশংসার করে বিশ্ব নেতারা জানিয়েছেন- বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ধারাবাহিকতা প্রয়োজন। শহীদুল হক বলেন, ‘বাংলাদেশের গণতন্ত্রের ক্ষেত্রে উন্নয়নের ক্ষেত্রে যে ধারাবাহিকতা আছে তা থাকবে। বেশ কয়েকজন রাষ্ট্রপ্রধান আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন সামনের বছর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে উনার সঙ্গে দেখা হবে।’

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক ও উৎসবমুখর পরিবেশে আয়োজনের বিষয়েও বিশ্বনেতাবৃন্দ তাদের উৎসাহের কথা তুলে ধরেছেন বলেও জানান পররাষ্ট্রসচিব।

বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের ৭৩তম অধিবেশনে বাংলায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। এছাড়া রোহিঙ্গা ইস্যুতে মানবিক ভূমিকা রাখার কারণে দুটি আন্তর্জাতিক পুরস্কার পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx