প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের কেবিন ক্রু মাসুমাকে বহিস্কার।

সিলনিউজ অনলাইনঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী ফ্লাইটে কেবিন ক্রুর ডোপ টেস্ট পজিটিভ হওয়া এবং বিষয়টি গোপন করার ঘটনায় জিএম আজিজুল ইসলামের নেতৃত্বে ২ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

অভিযুক্ত কেবিন ক্রু সৈয়দা মাসুমা মুফতিকে সাময়িক বহিস্কার এবং নুরুজ্জামান রঞ্জুকে ডিজিএম’র দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

গত ২১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার লন্ডনের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিজি-০০১ ফ্লাইট ছাড়ার আগমুহূর্তে ডোপ টেস্টে বিমানের কেবিন ক্রু সৈয়দা মাসুমা মুফতির শরীরে অ্যালকোহলের উপস্থিতি পাওয়া যায়।

এরপরই প্রধানমন্ত্রীর লন্ডনগামী ফ্লাইট থেকে মাসুমা মুফতিকে গ্রাউন্ডেড করা হয়। ফ্লাইটে চিফ পার্সার হিসেবে ছিলেন কাস্টমার সার্ভিসের ডিজিএম নুরুজ্জামান রঞ্জু। 

নুরুজ্জামান রঞ্জু এই তথ্য ফ্লাইট সিডিউল বিভাগকে জানান নি। তথ্য না জানানোয় ফ্লাইট সার্ভিস থেকে পরদিন সিঙ্গাপুর রুটেও মাসুদাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

কিন্তু বিমানের নিয়ম অনুযায়ী ডোপ টেস্টে প্রমাণ মিললে কোনো ব্যক্তিকে পরবর্তী ৯০ দিন কোন ফ্লাইটে দায়িত্ব দেওয়া যাবে না।

এরপর বিষয়টি জানাজানি হলে এবং মন্ত্রণালয় পর্যন্ত গড়ালে দায়িত্বে অবহেলা ও মাসুদা মুফতির মাদক সেবনের তথ্য গোপন করায় সোমবার মুফতি এবং রঞ্জুকে গ্রাউন্ডেড করা হয়।

সূত্রঃ চ্যানেল আই 

ফেসবুক মন্তব্য
xxx