কিসের উপর দাঁড়িয়ে আছে স্বচ্ছ ভোটের রাজনীতি : এম, এস রুবেল আহমদ

রাজনীতির উদ্ভব মানবসভ্যতার বিকাশ এর সাথে সাথে রাজার রাজতান্ত্রিক চিন্তাধারার মধ্যে দিয়ে ঘটেছে ও পরিপূর্ণতা লাভ করেছে. সেখান থেকে রাজ্য সভ্যতা, নীতিনির্ধারন ফুটে উঠেছে নেতৃত্ব। পাশাপাশি রাজনীতি হলো এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে কিছু ব্যক্তির সমন্বয়ে গঠিত কোন গোষ্ঠী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। এবার আসি আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে আসা নিজ মাতৃভুমির রাজনীতিতে। দেশে রাজনৈতিক দলের কোন অভাব নাই।ডানপন্থি, বামপন্থি, উদারপন্থি অনেক ধরনের দল আছে। রাজনৈতিক নেতা যারা আছেন তাদের স্বভাব চরিত্র এর কথা নাইবা বললাম, আমার চেয়ে আপনারা সবাই এ বিষয়ে ভালো জানেন। ভালো নেতা নেই এমন কথা বলছি না, কিন্তু তাদের অবস্থা এতই করুণ যে নির্বাচনে জেতাতো দূরে থাক, জামানত রক্ষা করতেই তাদের বারোটা বেজে যায়। নেতাদের এ অবস্থার জন্য কিন্তু আমরাই দায়ী, আমরা ভালো মানুষকে ভোট দেই, আমরা উন্নয়নের ধারা না বুঝে এতো লাফ দেই দেশের কথা, দশের কথা না ভেবে ভোট দেই, পেছন, সামনা না ভেবে ভোট দেই স্বজনপ্রীতি করে। আমরা যে দল সমর্থন করি না, সে দলে ভালো কেউ দাঁড়ালেও তাকে আমাদের চোখে ভালো লাগে না। নির্বাচনে আমরা এক চোখা নীতির অনুসরণ করি, ফলে নির্বাচিত হয়ে নেতারাও একচোখা নীতি অনুসরণ করেন, মানে শুধু নিজের স্বার্থের দিকে চোখ রাখেন আর কি। সময়ে কি আমাদের আজও টনক নড়েনি? নাকি বাকি প্রলয়ও অসহায় কর্মীদের, বোকা বানিয়ে গোফে তেল দিয়ে তা অবিরত চলবে? সামনে মহাকাল আপনাদের ব্যবস্থা তো করাই আছে, আমাদের টাও মেধা শ্রম একটু খাটিয়ে করে দিন।

এম, এস রুবেল আহমদ
শিক্ষার্থী, সিলেট ল কলেজ

১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ফেসবুক মন্তব্য
xxx