নবীগঞ্জে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার করায় ইউপি সদস্যেকে অপসারণের জন্য অভিযোগ দাখিল।

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জ উপজেলা দেবপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এডঃ মোঃ জাবিদ আলীকে নিয়ে ফেসবুকে নানা ধরণের অপপ্রচার ও মন্তব্যের প্রেক্ষিতে দেবপাড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সদস্য শেখ মামদ আলীকে ইউপি সদস্য পদ থেকে অপসারণসহ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সকল ইউপি সদস্যের রেজুলেশন অনুযায়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবর অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে । 

সোমবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসানের বরাবর রেজুলেশন ও অন্যান্য প্রমাণাদীর কাগজপত্রসহ অভিযোগটি দায়ের করেন দেবপাড়া ইউনিয়ের চেয়ারম্যান এডঃ মোঃ জাবিদ আলী।

অভিযোগের বিবরণ সূত্রে জানা যায়, দেবপাড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সদস্য শেখ মামদ আলী একজন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর সে সব সময় মদ, গাজা, ইয়াবা বিক্রি ও জোয়ার আসর বসিয়ে জুয়া খেলা ও দেশী-বিদেশী জোয়ারীদরে নিকট থেকে বহু টাকা প্রতিনিয়ত সংগ্রহ করা এবং পাশাপাশি বাড়ির লোকজনকে অত্যাচার-নির্যাতন করে। চেয়ারম্যান বহুবার কু-কর্মের জন্য তাকে সাবধান করার পরও গোষ্টি বড় হওয়ায় গায়ের জোড়ে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়া যাচ্ছে। অভিযোগে উল্লেখ্য করা হয়, দেশ-বিদেশী সন্ত্রাসীদের দ্বারা এলাকার লোকজন ও প্রায় সময়ই ইউপি চেয়ারম্যানকে হুমকী প্রর্দশন করে আসছে। যার ফলে আত্বসম্মানের ভয়ে কেহ এই অত্যাচার-নির্যাতনের প্রতিবাদ করতে সাহস পায় না। কিছুদিন র্পূবে একই বাড়িতে বসবাসকারী মামদ আলীর আপন ভাই সুন্দর আলীকে মদ, গাজা ও ইয়াবা ক্রয় বিক্রয়ের কারণে র‌্যাব সদস্যরা বাড়ীর চারিদিকে ঘেড়াও করে তাকে ধরার চেষ্টা করলে মামদ আলীর সহযোগীতায় তার ভাইকে পালিয়ে যেতে সাহায্য করে। তার ভাইকে উক্ত অপরাধের কারণে পূর্বে র‌্যাব-পুলিশ ধৃত করিয়া জেল হাজতে প্রেরণ করে। অদ্য বধি তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা চলিতেছে। অভিযোগে উল্লেখ্য করা হয়, ইউপি চেয়ারম্যান জাবিদ আলী মামদ আলীর কু-কর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় সদরঘাট গ্রামের মৃত শাহ ইজ্জত আলীর ছেলে শাহ এ্যানি লোদন ও অজানা সন্ত্রাসী লোকজনসহ এলাকায় প্রায় সময় দেশীয় অস্ত্রসহ মহড়া দেয় এবং চেয়ারম্যান জাবিদ আলীর বিরুদ্ধে হুমকি স্বরুপ কথা-বার্তা হাট-বাজারে প্রচার করে। মামদ আলী ও তার সঙ্গীরা জাবিদ আলী আগামী নির্বাচন কিভাবে করে তা দেখে নিবে বলেও বেড়ায়। শাহ এ্যানি লোদন তাদের হাত অনেক লম্বা। তারা একমত হয়েই উক্ত মানহানিকর সংবাদ মোবাইলে প্রচার করেছে নির্বাচনের আগে প্রয়োজনে আরো অনেক ক্ষতিকর পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে অনেকের কাছে বলে বেড়ায়। আরও বলা হয়, ২৭/০৮/২০১৮ইং তারিখে মামদ আলীর ফেইসবুক আইডিতে ইউপি চেয়ারম্যান জাবিদ আলীর বিরুদ্ধে মানহানীকর মিথ্যা সংবাদ প্রচার করে। মামদ আলী লোদনের সহযোগিতায় ফেইসবুকে প্রচার করে ইউপি চেয়ারম্যান জাবিদ আলী ২য় বিয়ে করেছেন সহ বিভিন্ন অপপ্রচার চালালে ইউপি চেয়ারম্যান জাবিদ আলী ইউনিয়নের সকল সদস্যেকে বিষয়টি অবগত করেন।

০১/০৯/২০১৮ইং তারিখে দেবপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে এক জরুরী সভার আহবান করা হয়। সভায় ইউপি সদস্য মামদ আলী ও লোদনের অপর্কমরে কথা সবাইকে অবহিত করলে উপস্থিত সকল ইউপি সদস্য মর্মাহত হন। সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ভাবে কার্যকরি ব্যবস্থা গ্রহণ ও ইউপি সদস্য মামদ আলীর পদ অপসারণ দাবী পূর্বক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসানের বরাবর অভিযোগ দায়েরর জন্য চেয়ারম্যানকে সুপারিশ করেন।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx