এবার বিমান চালাতে প্রস্তুত হচ্ছে সৌদি নারীরা

সিলনিউজ অনলাইন ডেস্কঃ সৌদি আরবে গাড়ি চালানোর অনুমতির পর এবার নারীদের বিমান চালানোর প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। দীর্ঘদিনের ড্রাইভিং নিষেধাজ্ঞা তুলে দেওয়ার পর এবার বিমানের ককপিটে বসার উপযোগী হতে যাচ্ছে তারা। উপসাগরীয় সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজ জানিয়েছে, সেপ্টেম্বর থেকে প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে অংশ নিতে একশ নারী এরইমধ্যে সেখানকার এক স্বনামধন্য বিমান-পরিচালনার প্রশিক্ষণ অ্যাকাডেমিতে আবেদন করেছেন।

গালফ নিউজ জানিয়েছে, অক্সফোর্ড এভিয়েশন একাডেমী নামে  সৌদি আরবের একটি ‘ফ্লাইট স্কুল’ দেশটির নারীদের প্লেন চালানোর প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে। সেপ্টেম্বর থেকে প্রায় একশ’রও বেশি সৌদি নারী এ স্কুলে বিমান চালানোর প্রশিক্ষণ নেবেন। সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) দৈনিক খালিজ টাইমস্’এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নারীদের প্লেন চালানোর অনুমতি দিয়ে তাদের অবাধ স্বাধীনতার পথ আবারও প্রশস্ত করতে যাচ্ছে সৌদি আরব। তবে কবে নাগাদ তারা বিমান পরিচালনার অনুমতি পেতে পারে, সে ব্যাপারে কিছু বলা হয়নি।

সৌদি নারীদের প্লেন চালানোর ব্যাপারে দেশটির অ্যাভিয়েশন একাডেমির কার্যনির্বাহী পরিচালক ওথম্যান আল মৌতাইরি জানান, এ ‘ফ্লাইট স্কুলে’ শিক্ষার্থীরা তিন বছরের একাডেমিক ও বাস্তব প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবেন।
সৌদি আরবই বিশ্বের একমাত্র দেশ যেখানে এই গত মাসের আগ পর্যন্ত নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি ছিল। তরুণ সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান সম্প্রতি তার দেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডকে গতিশীল করতে নানামুখী সংস্কার-কার্যক্রম হাতে নেন। এই সংস্কার কার্যক্রমের মধ্যে নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার বিষয়টিও অন্তর্ভুক্ত ছিল। গত বছর সেপ্টেম্বরে সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ এক ডিক্রিতে নারীদের রাস্তায় গাড়ি চালানোর অনুমতি দেন। তিনি ঘোষণা দেন ২০১৮ সালের ২৪ জুন থেকে নারীরা রাস্তায় গাড়ি চালাতে পারবে। প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে  জুন মাসে নারীদের ড্রাইভিং লাইসেন্স দিতে শুরু করে সৌদি কর্তৃপক্ষ। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর জুনের শেষ সপ্তাহে গাড়ি চালাতে শুরু করে তারা

ফেসবুক মন্তব্য
xxx