একজন আজাদ : তৃণমূল থেকে উঠে আসা এক সফল রাজনীতিবিদ ও জনপ্রতিনিধি (পর্ব-২)

আজাদুর রহমান আজাদ- সিলেটের রাজনৈতিক, সামাজিক, ক্রীড়াঙ্গনসহ নানাবিধ সংঘটন এর একজন সুনিপুণ কারিগর এর নাম। জীবনের প্রতিটি পর্যায়ে যিনি সফলতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত। যার মূল কারন তার ন্যায়পরায়ণতা, শিষ্টাচার, যোগ্যতা এবং অভিজ্ঞতা। সিলেটের সর্বস্তরের জনগণের কাছে তার এই সমস্ত গুণাবলির কারণে অবিশ্বাস্য জনপ্রিয়তা ও গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। জীবনের বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন প্রতিকূলতার স্বীকার হয়েও একমাত্র জনগণের অকৃত্রিম ভালোবাসা, দোয়া ও সমর্থনের কারনে তিনি বার বার সকল বাধা অতিক্রম করে জনসেবায় নিজেকে জনগণের মাঝে নিয়োজিত রাখতে পেরেছেন। রাজনীতি অনেকেই করেন, কিন্তু ইতিহাস হতে পারে কয়জন! কিন্তু তিনি ২০নং ওয়ার্ড তথা সিলেটবাসীর জন্য একজন জীবন্ত কিংবদন্তী। যেকোন মানুষের সমস্যায় তিনি ছুটে যান তার দুয়ারে। নিজের সর্বাত্মক সহযোগিতা দিয়ে চেষ্টা করেন তা সমাধানের। সাম্প্রদায়িকতা বলতে উনি কিছু বোঝেন না। পূজা থেকে শুরু করে বড়দিন পর্যন্ত যোগদান করেন আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে। খেলাধুলার প্রতিও যার রয়েছে অনন্য অবদান। বিভিন্ন টুর্নামেন্ট ছেড়ে তরুণ সমাজকে খেলাধুলার প্রতি উৎসাহ যোগান। দরিদ্র শিক্ষার্থীদের পাশে বাড়িয়ে দেন মানবতার হাত। এরই ধারাবাহিকতায় জনগণ এর দোয়া ও সমর্থনে গতকাল (রোববার) ২০নং ওয়ার্ড-এ চতুর্থবারের মতো কাউন্সিলর নির্বাচিত হোন। এতে উনার সহযোদ্ধা সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ এর ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট রনজিত সরকার ও উনার ভাগ্নে মিঠু তালুকদার নিজের মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করে অত্র ওয়ার্ডে আজাদুর রহমান আজাদকে একক প্রার্থী হিসেবে সমর্থন দিয়ে এক যুগান্তকারী দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন। টিলাগড় তথা ২০নং ওয়ার্ড এর সর্বস্থরের জনগনের সম্মিলিত প্রাণের দাবী একটাই, টিলাগড় একটি পরিবার এবং অতীতের মতো বর্তমান ও ভবিষ্যতেও যেনো এই পরিবারের ঐক্যবদ্ধতা বজায় থাকে।

লেখকঃ মনসুর মোর্শেদ

সিলেট জেলা ছাত্রলীগ

০৯ জুলাই ২০১৮

ফেসবুক মন্তব্য
xxx