নবীগঞ্জে দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি হামলায় ৪ সহোদরসহ উভয়পক্ষে ১০ জন আহত।

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জে বিবাদমান দু’পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে ৪ সহোদরসহ উভয়পক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে সংকটাপন্ন অবস্থায় একজনকে ঢাকা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার দুপুরের দিকে নবীগঞ্জ পৌর এলাকার তিমিরপুর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নবীগঞ্জ পৌরশহরের পূর্ব তিমিরপুর গ্রামের মকছুদ মিয়া তালুকদার ছেলে হামদু মিয়া তালুকদার এবং একই গ্রামের গোলাপ মিয়ার ছেলে শাকিল মিয়ার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে মামলা মোকদ্দমাসহ বিরোধ চলে আসছে।

গত রোববার রাতে হামদু মিয়া তালুকদারের বাড়ীতে কয়েকজন মেহমান আসেন। এ সময় পথিমধ্যে শাকিল মিয়ার পক্ষের মান্নাসহ কয়েকজন মিলে অপমান করে। বিষয়টি গতকাল সোমবার দুপুরে হামদু মিয়া তার প্রতিপক্ষ মান্নান মিয়াকে পেয়ে মেহমানকে অপমান করার কারন জানতে চাইলে তাদের মধ্যে বাদানুবাদ সৃষ্টি হয়। এ সময় শাকিল মিয়াসহ তার লোকজন ধারোলো অস্ত্র দিয়ে হামদু মিয়ার উপর হামলা চালায়। এতে হামদু মিয়ার পেটে ডেগার আটকা থাকে। এদিকে এ খবর পেয়ে হামদুর ভাইয়েরা এগিয়ে আসলে হামলা পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে। এতে হামদু মিয়ার অপর ৩ ভাই আজিজুর রহমান সাফি তালুকদার (২৮), বেলাল মিয়া তালুকদার (২৪) ও ইকবাল মিয়া তালুকদার (২০) আহত হয়। এছাড়া প্রতিপক্ষ শাকিল মিয়া (৩০), গোলাপ মিয়া (৫৫), কায়েছ মিয়া (১৯) ও জীবন মিয়া (১৫) আহত হন। আহতদের মধ্যে পেটে ডেগার ঢুকানো অবস্থায় হামদু মিয়া তালুকদার, তার ভাই আজিজুর রহমান তালুকদার সাফি, বেলাল মিয়া তালুকদার, কায়েছ মিয়া ও জীবন মিয়াকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং গোলাপ মিয়াকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

সর্বশেষ প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে পেটে ডেগার ঢুকানো আহত হামদু মিয়া তালুকদারকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ থেকে ঢাকা মেডিকেলে প্রেরণ করা হয়েছে। তার পরিবার এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তার অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx