নবীগঞ্জের বেতাপুরে রাতের আধাঁরে জায়গা দখল করে ঘর নির্মান, গ্রামে উত্তেজনা।

স্টাফ রিপোর্টারঃ নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের বেতাপুর গ্রামে যুক্তরাজ্য প্রবাসী লুকুল চৌধুরী ও রাসেল চৌধুরী গংদের মালিকানাধীন বাড়ী রকম ভুমিতে রাতের অাধাঁরে জায়গা জবর দখল করে ঘর নির্মানের গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় এনিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি সাময়িকভাবে শান্ত হলেও গ্রামে উত্তাল পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

জানা যায়, উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের শাহপুর মৌজাধীন বেতাপুর গ্রামের মৃত আব্দুল গনি চৌধুরীর পুত্র যুক্তরাজ্য প্রবাসী মুকুল চৌধুরী, লুকুল চৌধুরী ও রাসেল চৌধুরী গংদের অভিযোগ তাদের পিতৃ সম্পদ আউশকান্দি-মীরপুর পুরাতন আঞ্চলিক সড়কের নিকটবর্তী স্থানে বাড়ী রকম প্রায় ৮ শতক ভুমি গত রবিবার দিবাগত রাতে একই গ্রামের মৃত গোলাম ইজধানী চৌধুরীর পুত্র আবুল হাসান চৌধুরী গংরা কিছু ভাড়াটে লোক সংগ্রহ করে তাদের মালিকানাধীন ভুমি জবর দখল করে টিনসেড ঘর নির্মান করেন।

যুক্তরাজ্য প্রবাসী স্থানীয় সাংবাদিকদের মুটোফোনে কল দিয়ে অভিযোগ করে বলেন, তারা তিন ভাই যুক্তরাজ্যে বসবাস করেন তাঁরা বাড়িতে না থাকায় এরই সুবাদে তাদের ভুমি জবর দখল করেন তাদের প্রতিবেশী আবুল হাসান চৌধুরী গংরা। বাড়িতে তার একমাত্র বৃদ্ধ মাতা ব্যতিত আর কেহ নয়।

এ খবর পেয়ে আজ (সোমবার) দুপুরে নবীগঞ্জ থানার এ এস আই সুজিত চক্রবর্তী একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি সাময়িকভাবে শান্ত করেন এবং দখলদার বাহিনীকে মৌখিক ভাবে নিষেধ প্রধান করেন যাতে এই বিরোধপূর্ণ ভুমিতে কোন প্রকার দখলের কাজ না হয়।

এব্যাপারে ঘর নির্মানকারী আবুল হাসান চৌধুরী সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি তার মালিকানাধীন ভুমিতে ঘর নির্মান করেছেন এবং এই জায়গার প্রকৃত মালিক তিনি তাঁর পিতা মৃত গোলাম ইজদানী চৌধুরীর জীবদ্দশায় ১৯৭৫ ইংরেজীতে একই গ্রামের মৃত আব্দুর রহমান চৌধুরী ও আব্দুল কাইয়ূম চৌধুরীদের নিকট থেকে দলিল মূলে ক্রয়কৃত এই ৮ শতক ভুমির খরিদাসূত্রে প্রকৃত মালিক তিনি।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx