নবীগঞ্জের বাল্লারহাট বাজারে লাঠিয়াল বাহিনীর কর্তৃক মার্কেট ভাংচুর ও দোকান লুটপাট।

স্টাফ রিপোর্টারঃ নবীগঞ্জ উপজেলার বড়ভাকৈর পশ্চিম ইউনিয়নের বাল্লার হাট বাজারে একদল লাঠিয়াল বাহিনীর তান্ডব চালিয়েছে। সংঘবদ্ধ লাটিয়াল বাহিনীর লোকজন আজ সোমবার সকাল অনুমান ৭টার দিকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ঐ বাজারের সুরুজ উল্লা মার্কেট ভাংচুর করে মাটির সাথে মিশিয়ে দিয়েছে বাঁশ পালার ঘর, অভিযোগ করেন মার্কেট মালিক পক্ষে মাওলানা মোঃ এহছানুল হক । তিনি ওই এলাকার আমড়াখাইর গ্রামের মৃত সুরুজ উল্লার পুত্র।

তিনি স্থানীয় সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগ করে বলেন, গ্রামের মৃত গুরুচরন দাশ এর পুত্র গুনমনি দাশ ও মৃত রবীন্দ্র তালুকদারের পুত্র জনি দাশ, রনি দাশের সংগে পূর্ব বিরোধ এমনকি মামলা মোকদ্দমা চলে আসছিল। এরই জের ধরে আজ (সোমবার) সকালে এই লোকদের নেতৃত্বে একদল লাটিয়াল বাহিনী সুরোজ উল্লাহ মার্কেটে দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে হামলা করে মার্কেট ভাংচুর করে। এতে ৩টি দোকানঘর ও একটি অফিস ঘর ছিল। সংঘবদ্ধ লোকদের হঠাৎ বেপরোয়া হামলা ভাংচুরের কবল থেকে ঐ মার্কেটের কোন কোন ব্যবসায়ীরা প্রাণের ভয়ে পালিয়ে আত্মরক্ষা করেন। হামলাকারীরা এসময় প্রায় ২ লক্ষ টাকা মূল্যের তটি দোকান ঘর ও একটি অফিস ঘর ভাংচুর করে।

ব্যবসায়ী কলম্দর মিয়ার মুদি দোকানের প্রায় ১ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে, ব্যবসায়ী তৌফিক মিয়ার ধানের আড়তে থাকা ১০০ বস্তা ধান, অনুমান ২০০ মন যার মূল্য প্রায় ১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা, ব্যবসায়ী মিতেব উদ্দীনের দোকানঘর থেকে ১টি ল্যাপটপ ১টি সৌরবিদ্যুৎ এর ব্যাটারী ও লুট করে নিয়ে যায়, যার অনুমান মূল্য ৫০ হাজার টাকা হবে।

এছাড়াও ঘরের টিন, বাঁশপালা, দরজা জানালাসহ যাবতীয় সরঞ্জামাদি সহ আরো প্রায় ১ লক্ষ টাকা সর্বমোট প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটপাট করে নেয় দূর্বৃত্তরা। এই ঘটনায় নবীগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন মাওলানা এহছানুল হক।

উল্লেখিত ঘটনায় এলাকায় আতংক বিরাজ করছে। আবারো যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। অভিযোগকারী এহছানুল হক আরো বলেন, এই মার্কেটের মালিক তার ভাই শহিদুল হক, আনিছুল হক, জামিল হক এবং তিনিসহ তাদের লোকজনের জান মালের নিরাপত্তা নেই এবং উক্ত মার্কেটের একাংশের মালিক একই গ্রামের ও ইউপি আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইসলাম উদ্দীনকে ষড়যন্ত্র করে মামলা দিয়ে হাজতবাস করিয়ে প্রভাবশালীরা এসব কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে।

সিলনিউজ/ন/প/২৩এপ্রিল

ফেসবুক মন্তব্য