কুশিয়ারা নদী থেকে ফের শুরু হয়েছে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, দেখা দিয়েছে নদী ভাঙ্গন।

স্টাফ রিপোর্টারঃ কুশিয়ারা নদী থেকে ফের শুরু হয়েছে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন । এতে করে নদী ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে ব্যাপকভাবে। জনমনে নানা প্রশ্ন উঠেছে।

গতকাল (১৯ এপ্রিল) বৃহস্পতিবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের পারকুল বনগাঁও এলাকা থেকে কুশিয়ারা নদীর উপর ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে একটি প্রভাবশালী চক্র। সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে বালু উত্তোলন ও নদী রক্ষায় প্রশাসনের ভূমিকার নানা সমালোচনা করেছেন সচেতন মহল।

এসময় এ প্রতিবেদক বালু উত্তোলনের চিত্র ক্যামেরায় ধারণ করলে তারা দ্রুত ড্রেজার মেশিন নিয়ে পালিয়ে যায় ।

স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালীরা সরকারের অনুমতি না নিয়ে অবৈধভাবে এ বালু উত্তোলন করে আসছে বলে অহরহ অভিযোগ রয়েছে। এতে করে নদী ভাঙ্গন তীব্র আকার ধারণ করছে।

এক দিকে যেমন অনুমোদন না দিয়ে বালু উত্তোলনের ফলে সরকার হারাচ্ছে লাখ লাখ টাকা রাজস্ব। অন্য দিকে লক্ষ লক্ষ টাকা মুনাফা অর্জন করে অনেকেই আঙুল ফুলে কলাগাছ বনে যাচ্ছেন। এনিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, নবীগঞ্জ উপজেলার পারকুল গ্রামের বিবিয়ানা বিদ্যুৎ পাওয়ার প্লান্ট সংলগ্ন কুশিয়ারা নদীতে একাধিক স্থানে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করছেন কয়েকটি বালু খেকো সিন্ডিকেট, এতে জড়িত আছেন অনেক রাগব বোয়াল। কুশিয়ারা নদীর পানিতে ভাসমান ড্রেজার মেশিন বসিয়ে পাইপের মাধ্যমে নদীর গভীর তলদেশ থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এতে নদীর পাড়ে ভাঙন শুরু হয়েছে। আশপাশের আবাদি জমি ও বসতবাড়ি হুমকির মুখে পড়েছে।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন-হাসান বলেন, কুশিয়ারা নদী থেকে বালু উত্তোলনের কোনো সুযোগ নেই, মুলহুতাদের চিহ্নিত করে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সিলনিউজ/ন/প/২০এপ্রিল

ফেসবুক মন্তব্য
xxx