টিএ সুলেমানের কবিতা ‘আমি মানুষ’

আমি মানুষ
টিএ সুলেমান

একদিন নিরব নিস্তব্ধ পথে নিষিদ্ধ পল্লীর দিকে উদ্দেশ্য করে হাঁটছিলাম,
আর কল্পনার রাজ্যে কোনো এক বেশ্যার সাথে সংগমের চিত্র নিয়ে দুলছিলাম,
পাকা রাস্তায় জুতোর আওয়াজ কল্পনার রাজ্যে যেন আরো তাল দিচ্ছিলো!
হিম বাতাসও ছিলো
বাতাসের শব্দটা যেন আমার উত্তেজনার সহযোগী হচ্ছিলো,

হঠাৎ কান্নার আওয়াজ!
আওয়াজটা শুনে খুব বিরক্তবোধ করলাম,
এমন সময়ে ডিস্টার্ব খুব অসহ্যকর লাগছিলো,
তবুও ভাবলাম যাগ্যে-
খানিক পর তো কল্পনার চিত্রগুলো বাস্তব হবে।

তবে কে কাঁদলো?
আশপাশ কাউকে তো দেখছি না!
নিচের দিকে নজর দিলে অনুধাবন করতে পারলাম পায়ের তলার মাটি থেকেই আওয়াজ আসছে!
তবে কি মাটি কাঁদছে?
এমন প্রশ্নের সম্মুখীন হতে না হতেই
বিকৃতিরূপে হাসির আওয়াজ এলো
একই জায়গা থেকে!
হাসির ধরণটা খুব ভয়ংকর ছিলো
ভয় হচ্ছিলো, তারপরও বুকের সাহসটা হারাই নি।

সাহস নিয়ে প্রশ্ন করলাম-
-তুমি কে? খানিক হাসছো আবার খানিক কাঁদছো?
-আওয়াজ আসলো- আমি তোমার পায়ের নিচের মাটি! 
-কিন্তু মাটিতো কখনো এমন করে না! তবে তুমি এমন করছো কেন?
-জানতে চাও কাঁদছি কেন? তবে শুনো-
আমার উপর মানুষ দাঁড়িয়ে আছে বলে কাঁদছি!
হাসছি কেন জানো? আমি মানুষ নই এই আনন্দে হাসছি!

অতঃপর- নিজে নিজেকেই ধিক্কার দিতে থাকি… 
আমি মানুষ।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx