জগন্নাথপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় সাংবাদিকসহ ৫৫জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ॥ গ্রেফতার-৮

জগন্নাথপুর(সুনামগঞ্জ)প্রতিনিধি:– জগন্নাথপুর উপজেলার চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়নের দাসনোয়াগাঁও গ্রামে পূর্ব বিরোধের জের ধরে সংর্ঘষের ঘটনায় দৈনিক দিনকালপ ত্রিকার জগন্নাথপুর প্রতিনিধি হিফজুর রহমান তালুকদার জিয়াসহ উভয় পক্ষের ৫৫জনের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ঘটনার দিন পুলিশ ৮জনকে গ্রেফতার করে পরদিন আদালতে পাঠানো হয়।সংঘর্ষের ঘটনায় নানু মিয়া বাদী হয়ে দৈনিক দিনকাল ও দৈনিকসিলেট বাণীর জগন্নাথপুর প্রতিনিধি হিফজুর রহমান তালুকদার জিয়াকে আসামী করে ২৪জনের বিরুদ্ধে সুনামগঞ্জ আমল গ্রহনকারী আদালতে অভিযোগ দায়ের করলে আদালত অভিযোগটি গ্রহন করে জগন্নাথপুর থানায় রেকর্ডভুক্তির জন্য আদেশ দিলে গত ১৫ এপ্রিল মামলাটি জগন্নাথপুর থানায় রেকর্ডভুক্ত করা হয়।

এদিকে অপর পক্ষ সাংবাদিক হিফজুর রহমান তালুকদার জিয়ার ভাতিজা সুজন মিয়াবাদী হয়ে গত ১৩ এপ্রিল আব্দুল হক টুনু মিয়াকে প্রধান আসামীকরে ৩১জনের বিরুদ্ধে জগন্নাথপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। উভয় পক্ষের মামলা দায়েরের পর আসামীরা গ্রাম ছেড়ে পালিয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৯এপ্রিল সন্ধ্যা রাতে দাসনোয়াগাঁও গ্রামের মজনু মিয়া ও আব্দুল হক টুনু মিয়ার মধ্যে পূর্ব বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষে উভয় পক্ষের নারীসহ ২০জন আহত হন। খবর পেয়ে জগন্নাথপুর থানার সেকেন্ড অফিসার সাইফুল আলমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন এবং মজনু মিয়ার পক্ষের ৪জন ও আব্দুল হকটুনু মিয়ার পক্ষের ৪জনসহ মোট ৮জনকে গ্রেফতার করেন।

এদিকেদৈনিক দিনকাল ও দৈনিক সিলেট বানী পত্রিকার জগন্নাথপুর প্রতিনিধি ও জগন্নাথপুর অনলাইন প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক হিফজুর রহমান তালুকদার জিয়া স্বপরিবারে জগন্নাথপুর পৌর শহরে বসবাস করে পেশাগত দায়িত্ব পালন করে আসছেন। সংঘর্ষস্থল দাসনোয়াগাঁও গ্রামে তার নিজ বাড়ি হওয়ায় তাকে জড়িয়ে মামলা দায়েরের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন জগন্নাথপুর অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদ, সহ-সভাপতি আব্দুল ওয়াহিদ, সাধারন সম্পাদক মো: আব্দুল হাইসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং জগন্নাথপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ডা: নয়ন রায়, সাধারন সম্পাদক মো: শাহজাহান মিয়া ও জগন্নাথপুর সংবাদপত্র হকার্স সমিতির সভাপতি নিকেশ বৈদ্য।বিবৃতি দাতারা সুষ্টু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত ঘটনাকারীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনে পুলিশ প্রশাসনের প্রতি দাবী জানান।

ফেসবুক মন্তব্য