আন্দোলন নিয়ে সিদ্ধান্ত জানাতে ঢাবিতে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীরা

সিলনিউজ অনলাইন ডেস্কঃ বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের সমন্বয়ক হাসান আল মামুন জানান, ‘শিগগিরই আমরা আন্দোলন বিষয়ে আমাদের সিদ্ধান্ত জানাবো।’

এদিকে বুধবার রাতে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক রাশেদ খান জানান, আন্দোলন স্থগিত করা হবে। বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ৭১-কে রাশেদ খান বলেন, ‘আমরা কিছু মানুষের সঙ্গে পরামর্শ করলাম। তারা বললেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেসব সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তা যথেষ্ট ভালো এবং গ্রহণযোগ্য। এরপর আমরাও সিদ্ধান্ত নিলাম, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যা বলেছেন, আমরা সে সিদ্ধান্ত মোতাবেক চলবো।’

আন্দোলন থেকে কি সরে আসছেন–এমন প্রশ্নের জবাবে সম্মতি প্রকাশ করে রাশেদ খান আরও বলেন, ‘বৃহস্পতিবার আমাদের একটা প্রেস ব্রিফিং আছে, সেখানে আমরা সবকিছু আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবো। অন্যান্য বিষয়ে আমাদের আরও কিছু কথা বলার আছে, সেগুলো বলবো।’.

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার বিকালে সংসদে সরকারি চাকরির কোটা প্রসঙ্গে বক্তব্য দেন। তার এই বক্তব্যের পর সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের পক্ষ থেকে এর যুগ্ম আহ্বায়ক নূরুল হক জানান, তারা রাতে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের বিভিন্ন দিক বিশ্লেষণ করবেন। এরপর বৃহস্পতিবার সকালে রাজু ভাস্কর্যের সামনে সংবাদ সম্মেলন করে সংগঠনের মতামত জানাবেন।

বুধবার বিকালে জাতীয় সংসদের অধিবেশনে কোটা ব্যবস্থা বাতিল করার ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘কয়েকদিন পর তো আবার আরেক দল এসে বলবে, আবার সংস্কার চাই। তো কোটা থাকলেই সংস্কার। আর না থাকলে সংস্কারের কোনও ঝামেলাই নাই। কাজেই কোটা পদ্ধতি থাকারই দরকার নাই।’ তিনি আরও বলেন, ‘সাধারণ মানুষ বারবার কষ্ট পাবে কেন? এই বারবার কষ্ট বন্ধ করার জন্য আর বারবার এই আন্দোলন-ঝামেলা মেটানোর জন্য কোটা পদ্ধতিই বাতিল। পরিষ্কার কথা। আমি এটাই মনে করি, সেটা হলেই ভালো।’.

“বুধবার (১১ এপ্রিল) জাতীয় সংসদ অধিবেশনে নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারদলীয় সংসদ সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানকের এক প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 

ফেসবুক মন্তব্য
xxx