জগন্নাথপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত-১, আহত-৪

জগন্নাথপুর(সুনামগঞ্জ)প্রতিনিধি: জগন্নাথপুরে জমির পাঁকা ধান গরু দিয়ে খাওয়ানোকে কেন্দ্র করে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় নুরুল হক(৫০) নামের এক কৃষক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন নিহত নুরুল হকের ছেলে সাইফুল হক (২৮), আমিন মিয়া (১৮), মেয়ের জামাই গোলজার মিয়া (২৮), শরিফ উদ্দিন (২২)। আহতদেরকে জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের ভর্তি করা হয়েছে।

রবিবার(৮এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টায় উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের কুবাজপুর নয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। খবর পেয়ে থানার সেকেন্ড অফিসার সাইফুল আলমের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে কানাই করের ছেলে করুনা কর (৪৫) সুভাষ করের স্ত্রী শিবলী রাণী কর (৩৫) ও পাখি করের স্ত্রী সীমা রাণী কর কে (৩২)আটক করা হয়েছে। নিহত নুরুল হকের পরিবারের লোকজন জানান, কুবাজপুর নয়াপাড়া গ্রামের পাশে হাওরে নিহত নুরুল হকের রোপনকৃত জমির পাকা ধান ৩দিন পূর্বে শুক্রবার হাড় গ্রামের বৈঞ্চব কর ও পাখি করের গরু খেয়ে পেলে । এনিয়ে ঐদিন দু-পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়, এসময় বৈঞ্চব কর ও পাখি কর তাদের লোকজন নুরুল হককে বেশী বাড়াবারি না করার হুমকি দেয়। ঘটনাটি নুরুল হক স্থানীয় লোকজনদের কাছে জানালে প্রতিপক্ষরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এর জের ধরে রবিবার (৮এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টায় নিহত নুরুল হক স্থানীয় শিবগঞ্জ বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তায় পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা বৈঞ্চব কর, পাখি কর, সুভাষ কর ও করুনা করের নেতৃত্বে নারী সহ ৮/১০জন মিলে নুরুল হকের উপর হামলা চালায়। হামলাকারীরা নুরুল হককে শ্বাসরুদ্ধ করে অন্ডকোষ চেপে ধরার কারনে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। এসময় হামলাকারীদের কবল থেকে নুরুল হককে রক্ষা করতে তার ছেলে সাইফুল হক, আমিন মিয়া, মেয়ের জামাই গোলজার মিয়া ও শরিফ উদ্দিন ছুটে এলে হামলাকারীরা তাদেরকেও পিঠিয়ে আহত করে। এসময় স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে হামলাকারীদের কবল থেকে তাদেরকে উদ্ধার করে আহত অবস্থায় জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের নিয়ে আসা হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্েরর জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক নুরুল হককে মৃত ঘোষনা করেন। এদিকে আহতদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে নারী সহ ৩জনকে আটক করা হয়েছে। নিহত নুরুল হকের লাশ ময়না তদ্ধন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সরেজমিন ঘটনাস্থল কুবাজপুর নয়াপাড়া গ্রামে গিয়ে দেখা যায় নিহত কৃষক নুরুল হকের স্ত্রী ছেলে মেয়ে আত্মীয় স্বজনদের বুকফাঁটা করুন আহাজারীতে আকাশ বাতাস ভারী হয়ে উঠছে। দরিদ্র পরিবারের হাউমাউ করে কান্নায় উপস্থিত লোকজনদের চোখ বেয়ে অশ্রু ঝড়তে দেখা গেছে। শিবগঞ্জ-পাইলগাঁও সড়কের পশ্চিম পাশে একা একটি বাড়ীতে স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে থাকতেন কৃষক নুরুল হক। বর্গাচাষী হিসেবে কৃষি জমির ধানের উপর র্নিভরশীল হয়ে জীবন যাপন করছিলেন নিহত নুরুল হক। এলাকার অনেকেই ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। জগন্নাথপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ হারুনুর রশীদ চৌধুরী জানান ঘটনার খবর পেয়ে সেকেন্ড অফিসার সাইফুল আলমের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক এস আই ,এ এস আই সহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল কুবাজপুর নয়াপাড়া গ্রামে পৌছে অভিযান চালিয়ে করুনা কর, শিবলী রাণী কর ও সীমা রাণী করকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জরিতদের গ্রেফতরে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।এদিকে নিহত নুরুল হকের পরিবারের লোকজন হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

ফেসবুক মন্তব্য