নিউজটি পড়া হয়েছে 54

রোহিঙ্গা প্রশ্নে বাংলাদেশের পদক্ষেপের প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জাতিসংঘ মহাসচিবের ফোন।

সিলনিউজ অনলাইন ::: রোহিঙ্গা সংকটের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের পদক্ষেপের প্রশংসা করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতেরেস। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে টেলিফোন করে এই প্রশংসা করেন তিনি।

শুক্রবার রাত ৯টা ২৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীকে টেলিফোন করেন জাতিসংঘ মহাসচিব। তাদের মধ্যে ১২ মিনিট কথোপকথন হয়।

গত বছরের আগস্ট থেকে মায়ানমার সেনাবাহিনীর জাতিগত নিধন অভিযানের মুখে ৭ লাখেরও বেশি সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা সম্প্রদায় পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

টেলিফোনে আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের সঙ্গে মায়ানমারের সম্পাদিত চুক্তি বাস্তবায়নে জাতিসংঘের সহযোগিতা চান।

গত বছরের নভেম্বরে রোহিঙ্গাদের মায়ানমারে ফেরত পাঠাতে বাংলাদেশ ও মায়ানমারের মধ্যে একটি চুক্তি হয়। এখন পর্যন্ত একজন রোহিঙ্গাকেও ফেরত পাঠানো যায়নি।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে আট হাজার জনের একটি তালিকা মায়ানমার কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছিলো। এর মধ্যে মাত্র ৬৭৫ জন শরণার্থীকে ফেরত নিতে প্রস্তুত বলে সম্প্রতি জানিয়েছে মিয়ানমার।

শুক্রবার ফোনালাপে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি দেখতে জাতিসংঘ মহাসচিবকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান প্রধানমন্ত্রী।

অাগস্টে সহিংসতার পর থেকে নতুন আসা সাত লাখসহ কক্সবাজারে মোট রোহিঙ্গার সংখ্যা এখন প্রায় দশ লাখ। পুরো জেলায় ৫ হাজার ৮শ একর ভূমি এখন রোহিঙ্গাদের দখলে।

কৃষিজমি, পাহাড় বন উজাড় করে নির্মিত এই বিপুল সংখ্যক মানুষের বসতি গড়ে উঠেছে। আসন্ন বর্ষা মৌসুমে তারা মারাত্মক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হতে পারেন বলে শঙ্কা রয়েছে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জন করায় ভিডিও বার্তায় বাংলাদেশকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন জাতিসংঘ মহাসচিব।

সুত্র: চ্যানেল আই

ফেসবুক মন্তব্য
xxx