নিউজটি পড়া হয়েছে 194

ছাত্রাবাসে কলেজছাত্রের গলাকাটা লাশ, আরেকজন গুলিবিদ্ধ

সিলনিউজ অনলাইন ডেস্কঃ কুমিল্লা নগরীর রেইসকোর্স এলাকায় একটি ছাত্রাবাস থেকে সাগর দত্ত নামে এক কলেজছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। একই কক্ষ থেকে সজিব সাহা নামে আরেক ছাত্রকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার ভোর সাড়ে ৬টায় শহরের রেইসকোর্স পাকা পোল বিএইচ ভূঁইয়া হাউজ নামে একটি ভবনের নিচ তলা থেকে লাশ ও গুলিবিদ্ধ ছাত্রকে উদ্ধার করা হয়।

নিহত সাগর দত্ত কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার বারেরা ইউনিয়নের চিররা গ্রামের সংকর দত্তের বড় ছেলে। তিনি কুমিল্লা সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন।

আহত সজিব সাহা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্চারামপুর উপজেলার উজান চর গ্রামের রাকাল শাহার ছেলে। তিনি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ডিগ্রি পাস কোর্সের শেষ বর্ষের ছাত্র। তারা তিনটি কক্ষ ভাড়া নিয়ে থাকতেন।  

স্থানীয়রা জানায়, ভোর সাড়ে ৬টায় হঠাৎ গুলির আওয়াজ শুনে জানালা দিয়ে  তারা দুইজনকে দৌড়ে পালিয়ে যেতে দেখেন। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দুইজনকে মুখে টেপ লাগানো ও রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন। তাদের একজন গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নড়াচড়া করছেন। পরে পুলিশে খবর দেয়া হয়।  

কুমিল্লা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানভীর সালেহীন ইমন জানান, তিন তলা ভবনের নিচ তলায় ছয়জন তরুণ যুবক থাকতেন। ধারণা করা হচ্ছে তাদের মধ্যে প্রেমঘটিত কোনো বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এর জের ধরে হত্যাকাণ্ডটি ঘটতে পারে।

নিহত সাগরের গলায় ছুরিঘাকাত করে হত্যা করা হয়েছে। আর আহত সজিব সাহার বুকে গুলি করা হয়। তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, একটি ছুরি ও বটি উদ্ধার করা হয়েছে।

হত্যার সঙ্গে জড়িত ও বসবাসরত বাকি চারজনকে আটকের জন্য পুলিশ অভিযান ও তদন্ত শুরু করেছেন বলে তিনি জানান।

বাড়ির মালিক চিনমই ভৌমিকের স্ত্রী সেপালি বলেন, তাদের বাড়িটির তিন তলা বিশিষ্ট। তৃতীয় তলায় তারা থাকেন। দ্বিতীয় তলায় একটি ফ্যামিলি থাকে। আর নিচ তলায় দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে ব্যাচেলরদের বাড়া দিয়ে আসছেন। এক বছর আগে নিচ তলার তিনটি রুম সজিব সাহা ভাড়া নেন। তিন রুমে ছয়জন তরুণ থাকতেন। তাদের কেউ চাকরিজীবী আবার কেউ ছাত্র। সবাই হিন্দু পরিবারের সন্তান বলে তিনি জানান।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx