নিউজটি পড়া হয়েছে 117

কমলগঞ্জে রেললাইন থেকে ছাত্রীর খন্ডিত লাশ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা দায়ের।

নিজস্ব প্রতিবেদক :::: মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায় রেললাইন থেকে ছাত্রীর খন্ডিত লাশ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহতের বড় ভাই বাদি হয়ে ছাত্রীর স্বামী, শ্বাশুড়িসহ ৬ জনকে আসামী করে শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

গতকাল (বৃহস্পতিবার) কুলাউড়া উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের পাবই গ্রামে রাতে নিহত ছাত্রী তান্নীকে দাফন করা হয়।

নিহত তান্নীর বড় ভাই তামিম জানিয়েছেন, তার বোন তাসরিফা হক তান্নী ইংরেজীতে সম্মান চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী ছিল। সে কলেজ থেকে স্বামীর বাড়ি ফেরার পথে নিখোঁজ হয়। তান্নীর  স্বামী আলী ইফতেজা রাসেল তাকে প্রথমে সেই খবর দেয়।

তামিম জানান, তার বোনের (তান্নী) পড়াশুনা নিয়ে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজনদের সাথে কিছুটা পারিবারিক সমস্যা ছিল। বিশেষ করে তার দেবর রুবেল-এর সাথে বিরোধ ছিল অনেক।

তান্নীর পরিবারের সন্দেহ তান্নীর শশুড় বাড়ির লোকজনই পরিকল্পিতভাবে তান্নীকে হত্যার পর লাশটি রেল লাইনে রেখেছিল।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx