নিউজটি পড়া হয়েছে 106

সরকারি কর্মকর্তাদের ফ্ল্যাট নির্মাণসহ ১১ প্রকল্প একনেকে অনুমোদন।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ঃঃ রাজধানীর মিরপুর ৬ নং সেকশনে সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য ২৮৮টি ফ্ল্যাট নির্মাণসহ ১১ প্রকল্পের চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। ফ্ল্যাট নির্মাণ প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ২৯০ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

ফ্ল্যাট নির্মাণসহ বাকী ১০ প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় হবে ৭ হাজার ৪২৩ কোটি ৭২ লাখ টাকা। সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে পুরো অর্থ ব্যয় হবে। আজ (রোববার) রাজধানীর শেরেবাংলানগর এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় এসব প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়।

বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল প্রকল্প সম্পর্কে সাংবাদিকদের বিস্তারিত ব্রিফ করেন।তিনি বলেন, সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সংখ্যা বহুগুণে বৃদ্ধি পেলেও সরকারি আবাসন সুবিধা আগের মতই রয়ে গেছে। ফলে বর্তমানে আবাসন সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে। এজন্য সরকারি কর্মকর্তাদের আবাসন সুবিধা তথা স্বাস্থ্যকর ও উপযুক্ত বাসস্থান নিশ্চিত করতে এই প্রকল্পটি নেয়া হয়েছে।

ঢাকাস্থ মিরপুর ৬নং সেকশনে সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য ২৮৮টি আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ’ প্রকল্পটি গণপূর্ত অধিদফতর সেপ্টেম্বর ২০১৭ হতে জুন, ২০২০ মেয়াদে বাস্তবায়ন করবে।পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যেক হাওর অঞ্চলের জন্য আলাদা আলাদা প্রকল্প নেওয়ার নির্দেশা দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, মাছের জন্য ল্যান্ডিং স্টেশন নির্মাণ, মাছ বাজারজাতকরণে ভ্যান কেনাসহ বিকল্প ফসল উৎপাদন ও বিকল্প আয়ের পথ খুঁজে বের করতে হবে। এজন্য প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয় ও হাওর উন্নয়ন বোর্ডসহ সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থাকে সমন্বিতভাবে কাজ করতে বলেছেন।

তিনি আরো জানান, প্রধানমন্ত্রী জাতীয় রাজস্ব ভবন ২০তলার পরিবর্তে ১২ তলা করার নির্দেশনা দিয়েছেন।কারণ, বিমান বন্দর কাছাকাছি থাকায় এটি ২০তলা করা যাচ্ছে না। পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ঢাকায় র‌্যাব ফোর্সেস সদর দফতর নির্মাণের জন্য প্রাথমিক অবকাঠামো নির্মাণের লক্ষ্যে র‌্যাব ফোর্সেস সদর দফতর নির্মাণ প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে র‌্যাব সদর দফতরের স্থায়ী অবকাঠামোর প্রথম ধাপের কাজ সম্পন্ন হবে। প্রকল্পটির প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৯৫ কোটি ১০ লাখ টাকা এবং বাস্তবায়নকাল জানুয়ারি ২০১৮ হতে জুন, ২০২১।

একনেকে অনুমোদন পাওয়া অন্য প্রকল্পসমূহ হচ্ছে-উপজেলা ও ইউনিয়ন সড়কে দীর্ঘ সেতু নির্মাণ প্রকল্প, বৃহত্তর ফরিদপুর গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন (২য় পর্যায়), ‘বৃহত্তর ফরিদপুর গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন (৩য় সংশোধিত) প্রকল্প, সমন্বিত কৃষি উন্নয়নের মাধ্যমে পুষ্টি ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ প্রকল্প, ঢাকা-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের ইন্দ্রপুল হতে চক্রশালা পর্যন্ত বাঁক সরলীকরণ প্রকল্প, চট্টগ্রাম বিএফ ঘাঁটি জহুরুল হক বিমান সেনা প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট স্থাপন প্রকল্প, বরিশাল টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ উন্নীতকরণ প্রকল্প, জামালপুরের মাদারগঞ্জে শেখ রাসেল টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট প্রকল্প এবং জাতীয় রাজস্ব ভবন নির্মাণ (সংশোধিত) প্রকল্প। বাসস 

ফেসবুক মন্তব্য
xxx