নিউজটি পড়া হয়েছে 72

চট্রগ্রাম টেস্টের শেষ দিনে বাংলাদেশের ম্যাচ বাঁচানোর লড়াই।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ঃঃ চট্টগ্রাম টেস্টে ২০০ রানে পিছিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছিল টাইগাররা। সূচনাটা ভালোই করেছিল তামিম-ইমরুল জুটি। কিন্তু দিন শেষে সেটা আর ভালো থাকেনি। দিনশেষে ৮১ রান করতে তিন উইকেট খুঁইয়ে বসে বাংলাদেশ দল।

দ্বিতীয় ইনিংসেও প্রথম ইনিংসের মতই ঝড়ো ব্যাটিং করতে থাকেন তামিম। তুলনায় কিছুটা রয়ে সয়ে খেলার চেস্টা করেন ইমরুল কায়েস। কিন্তু হাটু গেড়ে সুইপ করতে গিয়ে ব্যাক্তিগত ১৯ রানে ইমরুলকে দিয়েই উইকেট পতনের শুরু। 

দিলরুয়ানে পেরেরার বলে চান্দিমালের হাতে ক্যাচ দিয়ে যখন ইমরুল বিদায় নেন তখন দলীয় স্কোর ৫২।  এরপর আউট হন তামিম ইকবাল। সান্দকানের একটি বল রক্ষণাত্মক ভাবে খেলতে গিয়েও ব্যাটের কানায় লেগে চলে যায় ডিকওয়েলার কাছে। আর ক্যাচটি ধরতে ভুল করেননি লঙ্কান তারকা। দিনের মাত্র ৪ ওভার বাকি থাকতে তামিমের এই আউটই হয়তো পোড়াত বাংলাদেশকে। কিন্তু তার উপর যেন মরিচ বাটা হয়ে আসে মুশফিকের আউট। 

দিনের একেবারে শেষ বলে রঙ্গনা হেরাথের বলে কুশাল মেন্ডিসের দারুন এক ক্যাচে পরিণত হয়ে দলীয় ৮১ রানের মাথায় সাঝঘরে ফিরেন মুশফিক। আর সেই সাথেই শেষ হয়ে যায় দিনের খেলা। শ্রীলঙ্কা থেকে বাংলাদেশ এখনো পিছিয়ে আছে ১১৯ রানে। আর উইকেটে ভরসা হিসেবে আছেন প্রথম ইনিংসে ১৭৬ রান করা মুমিনুল হক।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৫১৩ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে সাত উইকেট হারিয়ে ৭১৩ রান সংগ্রহ করে ইনিংসের সমাপ্তি ঘোষণা করেছে শ্রীলঙ্কা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ১৯৬ রানের ইনিংস খেলেছেন কুশল সিলভা। ১৭৩ রান করেছেন ধনঞ্জয় ডি সিলভা। ১০৯ রানের ইনিংস এসেছে রোশেন সিলভার ব্যাট থেকে। অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমালও খেলেছেন ৮৭ রানের অধিনায়কোচিত ইনিংস। 

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে মুমিনুল হকের ১৭৬, মুশফিকুর রহিমের ৯২, মাহমুদউল্লাহর ৮৩ রানের ইনিংসগুলোতে ভর করে স্কোরবোর্ডে ৫১৩ রান জমা করেছিল বাংলাদেশ।

সূত্র : ইএসপিএন ক্রিকইনফো/একুশে

ফেসবুক মন্তব্য
xxx