নিউজটি পড়া হয়েছে 25

‘আওয়ামী লীগ সরকার চিরাচরিত ভাবেই গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়।

সিলনিউজ অনলাইন ডেস্কঃ  আজ শনিবার সকালে বিএনপির জাতীয় নির্বাহীর কমিটির সভা অনুষ্টিত হয় রাজধানীর হোটেল লা মেরিডিয়ানে। সভার প্রতিবেদনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন ‘বাংলাদেশের রাজনীতির আকাশে ঝড়ের পূর্বাভাস দেখতে পাচ্ছি। আমরা দানবীয় সরকারের মারমুখী আক্রমণের বিরুদ্ধে অব্যাহত ভাবে লড়াই করে টিকে আছি। পরাজয়ের ভয়ে ভীত আওয়ামী লীগ, তাই ওরা উন্মাদের মতো হত্যা-লুণ্ঠন আর ধ্বংসের লীলায় মেতে উঠেছে।’
 
বিএনপি মহাসচিব প্রতিবেদনে বলেন, ‘আমাদের সামনে আজ সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব সুরক্ষা এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার। এই স্বৈরাচারি ফ্যাসিস্ট সরকারের বিরুদ্ধে দুর্বার গণ আন্দোলনের মাধ্যমে নির্দলীয়, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে। আমাদের মধ্যে সব দ্বিধা-দ্বন্দ্বের অবসান ঘটিয়ে সাংগঠনিক প্রক্রিয়াকে বেগবান করে ইস্পাত কঠিন ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। মনে রাখতে হবে আওয়ামী লীগ একটি ফ্যাসিবাদী সরকার, আন্দোলনের মধ্যে দিয়েই তাকে গণদাবি মেনে নিতে বাধ্য করতে হবে। লড়াই করে টিকে থাকার কোনও বিকল্প নেই।’
 
আওয়ামী লীগ সরকার বিচার বিভাগকে নগ্নভাবে নিয়ন্ত্রণ করছে উল্লেখ করে ফখরুল জানান, রাজনৈতিক বিবেচনায় প্রধানমন্ত্রীর ১৫টি মামলাসহ সরকারি দলের নেতাকর্মীদের ৭ হাজার ৬৩টি মামলা প্রত্যাহার হলেও খালেদা জিয়াসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের কোনও মামলা প্রত্যাহার হয়নি। বরং বিএনপি চেয়ারপারসন, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক জিয়া, জাতীয় নেতাসহ সারাদেশে ১১ লাখ ৯১ লাখ ৪৪৯ জন নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ৫০ হাজার ৭৪টি মামলা দায়ের করেছে সরকার।
 
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার জন্যই সরকার তার বিরুদ্ধে বিতর্কিত রায় দেওয়ার নীল নকশা করছে উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, ‘কিন্তু জনগণ এই ষড়যন্ত্র কোনোভাবে মেনে নেব না। প্রতিবাদী জনগণ রাজপথে নেমে এলে গণ আন্দোলনের জোয়ারে আওয়ামী তখত ভেঙে খান খান হয়ে বঙ্গপোসাগরে ঢেউয়ের তোড়ে ভেসে যাবে।’

নির্বাহী কমিটির সভায় উত্থাপিত মহাসচিবের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ‘আওয়ামী লীগ সরকার চিরাচরিত ভাবেই গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়। ঐতিহ্যগতভাবেই তারা ভিন্নমত সহ্য করতে পারে না। সর্বশেষ ৫৭ ধারা বাতিল করে যে নতুন আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন করা হয়েছে তা আরও ভয়াবহ বলে সাংবাদিক সমাজ থেকে প্রতিবাদী আওয়াজ উঠেছে।’

শনিবার সকাল ১১টা ১০ মিনিটে রাজধানীর হোটেল লা মেরিডিয়ানে বিএনপি’র নির্বাহী কমিটির প্রথম বৈঠক শুরু হয়। এতে সভাপতিত্ব করছেন দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এতে দলের ৭০০ নেতা উপস্থিত আছেন। এর মধ্যে নির্বাহী কমিটির সদস্য ৫০২ জন। এছাড়া দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সব জেলার সভাপতিরাও অংশ নিচ্ছেন বৈঠকে।

ফেসবুক মন্তব্য