নিউজটি পড়া হয়েছে 411

বন্ধুত্ব ও উপলব্দি : আশরাফুল আলম রয়েল

বন্ধু কথাটি থাকে আত্মার সাথে জড়িয়ে। কিছু কিছু বন্ধু থাকে সবার জীবনে। যারা ভাব দেখায় এমন, জীবন সম্পর্কে তাদের ধারণা সবার থেকে বেশি। যারা শুধু বিপদে পড়লেই আপন সাজতে চায়। বন্ধু নামের এই কাপুরুষগুলো ঘুরে বেড়ায় আপনার আমার সবার পাশ দিয়ে। এরা কখনও আপনার বিপদ দেখে না। এরা শুধু ঝামেলা বাড়াতে পারে। কথায় কথায় এরা বন্ধুত্ব নিয়ে কথা বলে কিন্তু ‘বন্ধুত্ব’ কি জিনিস এটা বোঝার ক্ষমতা ওদের নেই। ওরা মানসিক ভারসাম্যহীন। ওরা মনে করে মানুষের সামনে বন্ধুকে পচিয়ে বোধ হয় নিজে অনেক বড় হওয়া যায়। জীবনে অনেক ভাল বন্ধু পেয়েছি তাদের সম্মানে বলতে চাই “এমন বন্ধু থাকার চেয়ে না থাকাই ভাল”। অবশ্যই বন্ধু নির্বাচনে আপনার ভাল আর খারাপ বিবেচনা করা উচিৎ। আপনার ভাল বন্ধুরা ঠিকই কাছে এসে আপনার বন্ধু হতে চাইবে যদি আপনি নিজের মত নিজেকে গড়ে তোলেন। আমার মনে হয় বিশেষ কিছু ক্ষেত্রে বন্ধুদের নকল না করে আপনার ব্যক্তিগত ভালোলাগা আর স্বভাবের কদর করা উচিৎ। কারণ, নিশ্চয়ই আপনার গুন আর স্বভাবের কারনেই আপনার আশপাশের মানুষগুলো আপনার সাথে বন্ধুত্ব করেছিল। আর যদি আপনি লোকের কথামতো নিজেকে পরিবর্তন করতে চান তাহলে জেনে রাখা ভাল যে, আপনি নিজেকে হারিয়ে ফেলতে বসেছেন! আপনি যতই ধনী হন, একটা কথা মনে রাখা ভাল, সমাজে চলতে হলে নিম্ন শ্রেণীর বন্ধুটিকেও আপনি ছোট করে দেখাতে পারেন না। কারণ, নিশ্চয়ই আপনি রাস্তায় খালি পায়ে হাঁটা পছন্দ করবেন না। আরে ভাই বন্ধু হতে গেলে তো টাকা লাগে না, মনের মিল থাকা লাগে। আমার কাছে বন্ধুত্ব মানে হলো নি:স্বার্থ বোঝাপড়া। যে আমার দু:খে সমব্যাথী হয়, যে আমার সুখকে সমানভাবে ভাগ করে নিতে চায়- সেই আমার বন্ধু। আমার কাছে বন্ধুত্বের ব্যাপারটা সব সময়ই এক। যে নিজেকে যেভাবে দেখবে সে কিন্তু তেমন ভাবেই তার চারপাশকে মূল্যায়ণ করবে। যেমন একজন অভিনয় শিল্পী বা নাট্যকর্মী যে দিন থেকে ভাবতে শুরু করবে যে সে একজন তারকা, সে দিন সে থেকে সে নিজের জন্য একটি আলাদা ভুবন তৈরি করবে। যে ভুবনে সবার প্রবেশাধিকার থাকবে না। তখনই তার পারস্পারিক সম্পর্কের মধ্যে একটা দুরত্ব আসবে। অনেকের কাছেই হয়ত খ্যাতিমান হয়ে যা্ওয়ার পর বন্ধত্বের সম্পর্কগুলো পাল্টে যায়, কিন্তু আমার সে রকম হয়নি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আসার পর বন্ধুত্বের সম্পর্কে অবশ্যই কিছু পরিবর্তন এসেছে। তবে আমি বলব যে, বন্ধুত্ব এক জিনিস আর যোগাযোগ কিন্তু অন্য জিনিস। ফেসবুক ফ্রেন্ড আর আসল বন্ধুর মাঝে পার্থক্য বিপুল। আমার অনেক ভাল বন্ধুই আমার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বন্ধু তালিকায় নেই। তাই বলে যে তাদের সাথে আমার বন্ধুত্ব কমে গেছে তা তো নয়। অনেক বন্ধুই আছে আমার যাদের সাথে বছরে হয়ত একবারও দেখা হয় না। কিন্তু বন্ধুত্ব একই রকম আছে। আবার অনেকেই আমার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বন্ধু কিন্তু তারা আমার ব্যক্তিগত জীবনে বন্ধু নন। কাজেই আমার কাছে মনে হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা ফেইসবুকটা বন্ধুত্বের জন্য অতো বেশি গুরুত্বপূর্ণ কিছু নয়।

লেখকঃ আশরাফুল আলম (রয়েল)

ব্যবসায়ী, ঢাকা, ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 

ফেসবুক মন্তব্য
xxx