নিউজটি পড়া হয়েছে 337

জহীর মুহাম্মদের ছড়া “পত্র প্রাপক একজন বাউণ্ডুলে!”

 

পত্র প্রাপক একজন বাউণ্ডুলে!
জহীর মুহাম্মদ

কেমন আছি? জানতে চেয়ে
নিত্য লিখো চিঠি
জীবন নিয়ে সকাল-বিকেল
জোরসে করি পিটি

হাল হকিকত জানতে তোমার
আরজি সবিনয়
সত্যি কি মোর ভালো থাকার
হচ্ছে অভিনয়?

না না আমি হাছাই ভালো
হরষে কাটাই দিন
আমার কাছে কষ্টটাই
মিষ্ট ও রঙ্গিন!

চিঠির ফাঁকে লিখছো আরো
কোথায় থাকি আজ
প্রজাতন্ত্রের গোলাম না কি
চালাই নিজের কাজ!

বলতে পারো শ্রমিক আমি
মোটেও নই বেকার
পাইনা সময় দিনে-রাতে
দুঃখগুলো দেখার!

জিজ্ঞাসিলে পত্র শেষে
করছি কিনা বিয়ে
কেমন আছি? বউ ছেলে আর
শ্বশুরবাড়ি নিয়ে!

ছিঃ ছিঃ তুমি আর বলোনা
লাগছে আঁতে ঘা
ঠিকি বিয়ের ফুল ফুটেছে
হৃদয় মিলে না…

যাত্রী হবে? আমার বিয়ের
না না খবরদার
ঝলসে যাওয়া ফুল বাসরে
ভিষণ অন্ধকার।

স্বপ্ন দেখি স্বপ্ন দেখাই
তবুও আশার দ্বোর
সদাই থাকে খিল আঁটানো
বন্দী যে অন্তর!

টানছি ইতি এই চিঠিটির
শেষ কথাটা বলে
কষ্টে থেকেও হাসে যারা
আমি তাদের দলে

তুমি যদি ভালো থাকো
মন্দ কি রই আমি?
তুমি যখন চলছোই বেশ
কেমনে বলো থামি।

আর যদি গো দেইনা সাড়া
তোমার চিঠি পড়ে
এই চিঠি য্যান শেষ চিঠি হয়
লেখা তোমার তরে।

সত্যিকারে ভক্তি ভরে
বিশ্বাসী হই যদি
তোমার চিঠি কইবে কথা
জনম শেষ অবধি!

ফেসবুক মন্তব্য
xxx