ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বক্সিং-ডে টেস্ট ড্র করলো স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া।

http://colombianaautomotriz.com/citharanaida-cithara_2145619650_2ebd6ap.ink source link সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ঃঃ অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের অনবদ্য সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বক্সিং-ডে টেস্ট ড্র করলো স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। ১৬৪ রানে দ্বিতীয় ইনিংসে পিছিয়ে থেকে খেলতে নেমে পঞ্চম ও শেষ দিন স্মিথের অপরাজিত ১০২ রানের সুবাদে ৪ উইকেটে ২৬৩ রান সংগ্রহ করে অসিরা। ফলে দিনের খেলা শেষ হবার ৯ ওভার আগেই অ্যাশেজ সিরিজের চতুর্থ ম্যাচটি ড্র ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। প্রথম তিন টেস্ট জয়ে আগেই পাঁচ ম্যাচের অ্যাশেজ সিরিজ নিশ্চিত করে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। তাই চতুর্থ টেস্ট শেষেও ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে স্মিথের দল।

http://approaches.gr/wp-content/uploads/2015/09/Approaches_FirstView_Book-review20_Saul.pdf প্রথম ইনিংসে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিনই নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। দিন শেষে ২ উইকেটে ১০৩ রান তুলেছিলো স্বাগতিকরা। ৩টি চারে ১৪০ বলে ৪০ রানে অপরাজিত ছিলেন ওয়ার্নার। অন্যপ্রান্তে স্মিথ অপরাজিত ছিলেন ৬৭ বলে ২৫ রান নিয়ে।

Purchase Tramadol Discount পঞ্চম ও শেষ দিনও ব্যাট হাতে অবিচল ছিলেন ওয়ার্নার ও স্মিথ। এই জুটি ভাঙ্গতে সর্বাত্মক চেষ্টা করেছেন ইংল্যান্ডের বোলাররা। কিন্তু উইকেটের সাথে সন্ধি করে সেঞ্চুরির পথেই হাঁটচ্ছিলেন ওয়ার্নার ও স্মিথ।

go to link কিন্তু ৮৬ রানেই থেমে যেতে হয় প্রথম ইনিংসে ১০৩ রান করা ওয়ার্নারকে। সপ্তম বোলার হিসেবে আক্রমণে এসে নিজের দ্বিতীয় ডেলিভারিতেই ওয়ার্নারের বিদায় ঘন্টা বাজান ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ও অকেশনাল অফ-স্পিনার জো রুট। ৮টি চারে ২২৭ বলে নিজের ইনিংস সাজানোর পাশাপাশি স্মিথের সাথে তৃতীয় উইকেটে ১০৭ রান যোগ করেন ওয়ার্নার।

Best Online Tramadol Sites ওয়ার্নার বিদায়ের পর ক্রিজে স্মিথের সঙ্গী হন শন মার্শ। কিন্তু মার্শকে ২৮ মিনিটের বেশি ক্রিজে থাকতে দেননি ইংলিশ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড। নামের পাশে ৪ রান রেখে থামেন মার্শ। এতে ম্যাচে কিছুটা উত্তেজনা ছড়িয়েছিলো। ৬ রানের ব্যবধানে দুই উইকেট তুলে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার উপর প্রাধান্য বিস্তার করার স্বপ্ন দেখছিলো ইংল্যান্ড।

http://societydenver.com/?author=3 কিন্তু সেটি হতে দেননি স্মিথ ও মিচেল মার্শ। পঞ্চম উইকেটে ৮৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন তারা। এরমধ্যে ৬০ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে ২৩তম সেঞ্চুরির স্বাদ পান স্মিথ। চলতি বছর ১টি ডাবল-সেঞ্চুরিসহ ছয়টি সেঞ্চুরির করেছেন স্মিথ। তাই এ বছরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও তিনি। ১১ ম্যাচের ২০ ইনিংসে ১৩০৫ রান করেন স্মিথ।

Order Tramadol From Mexico তিন অংকে পা দেয়ার বেশ কিছুক্ষণ পরই রুটের সাথে সম্মতিতে ম্যাচটি ড্র মেনে নেন স্মিথ। ২৭৫ বলে ৬টি চারে ১০২ রানে অপরাজিত থাকেন স্মিথ। অন্যপ্রান্তে ২৯ রানে অপরাজিত থাকেন মার্শ। ম্যাচ সেরা হয়েছেন ইংল্যান্ডের অ্যালিস্টার কুক।
আগামী ৪ জানুয়ারি থেকে সিডনিতে শুরু হবে সিরিজের চতুর্থ টেস্ট।

click সংক্ষিপ্ত স্কোর :
অস্ট্রেলিয়া : ৩২৭ ও ২৬৩/৪ডি, ১২৪.২ ওভার (স্মিথ ১০২*, ওয়ার্নার ৮৬, রুট ১/১)।
ইংল্যান্ড : ৪৯১/১০, ১৪৪.১ ওভার (কুক ২৪৪*, রুট ৬১, কামিন্স ৪/১১৭)।
ফল : ড্র।
ম্যাচ সেরা : অ্যালিস্টার কুক (ইংল্যান্ড)।
সিরিজ : পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে ইংল্যান্ড।

source site বাসস 

ফেসবুক মন্তব্য

Leave a Reply

click here Your email address will not be published. Required fields are marked *

source