নিউজটি পড়া হয়েছে 156

সিলেটে সীরাতুন্নবী (সা.) উপলক্ষে নাতে রাসুল (সা.) সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকমঃঃ সীরাতুন্নবী (সা.)উদযাপন জাতীয় কমিটি, সিলেট-এর উদ্যোগে সীরাতুন্নবী (সা.) উদ্যাপন উপলক্ষে সিলেটের বিভিন্ন সর্বস্তরের মানুষের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো নাতে রাসুল (সা.) সন্ধ্যা। এই মহতি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  সীরাতুন্নবী (সা.) উদযাপন জাতীয় কমিটি-এর কেন্দ্রীয় আহবায়ক বিশিষ্ট লেখক ও সংগীতজ্ঞ মুস্তাফা জামান আব্বাসী।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ কবি কালাম আজাদ।প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট লেখক ও সংগীতজ্ঞ মুস্তাফা জামান আব্বাসী বলেন, পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ট আদর্শ হচ্ছে রাসুলের আদর্শ। তাঁর আদর্শ অনুসরণ ছাড়া মানুষের মুক্তি ও বিশ^শান্তি প্রতিষ্টা সম্ভব নয়। আমাদের হৃদয়ে রাসুলের প্রতি ভালোবাসা সৃষ্টি করতে হবে। রাসুলের নাম জপে হৃদয়ে যে শান্তি অনুভূত হয় তা আর অন্য কোনো ভাবেই সম্ভব হয় না। কবি কাজী নজরুল ইসলাম এবং শিল্পী আব্বাস উদ্দিন ইসলামী সংগীত রচনা এবং সাধনার মাধ্যমে ঘুমন্ত মুসলিমদেরকে জাগ্রতকরার পাশাপাশি অত্যন্ত সহজে রাসুলের প্রতি প্রেম ও ভালোবাসাকে প্রকাশ করেছেন।রাসুলের প্রতি সত্যিকার ভালোবাসার নিদর্শন স্বরুপ সিলেটে একটি টিভি স্টেশন প্রতিষ্ঠা করা সময়ের দাবী। যেখান থেকে শুধই রাসুলের শানে গান এবং কবিতা পাঠ হবে।

লেখক-সংগঠক আহমদ মাহবুব ফেরদৌসের সঞ্চালনায় (২৮ ডিসেম্বর) বৃহস্পতিবার সিলেট কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের শহীদ সোলেমান হলে অনুষ্ঠিত নাতে রাসুল (সা.) সন্ধ্যায় সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট আবৃত্তিকার-উপস্থাপক শরীফ বায়জীদ মাহমুদ, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুস সালাম আল মাদানী, ইসলামী চিন্তাবিদ লেখক মাওলানা শাহ নজরুল ইসলাম।এছাড়া অনুষ্ঠানে রাসুল (সা.) সম্মানে একক সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী হেলাল আহমদ এবং শিশুশিল্পী তাসফিয়া জাহান তাহিয়া, গণ-সংগীতশিল্পী মিসবাহ উদ্দিন সহ সিলেটের তরুণ শিল্পীগোষ্ঠী এবং শিশু শিল্পীরা।

অনুষ্ঠানের শেষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন প্রাবন্ধিক-সংগঠক জাহেদুর রহমান চৌধুরী। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন হাফিজ হিফজুর রহমান।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যক্ষ কবি কালাম আজাদ বলেন, রাসুলের সত্যিকার অনুসরণের মাধ্যমেই দুনিয়া এবং আখেরাতে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। তাই আমাদের জীবনে প্রতিটি ক্ষেত্রে রাসুল সা.-এর আদর্শ অনুসরণ করতে হবে। রাসুলের আদর্শ অনুসরণের মাধ্যমেই জীবন হয়ে উঠবে আলোকিত।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞান ওপ্রযুক্তি অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. নজরুল হক চৌধুরী, শাবিপ্রবির বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড. আব্দুর রহিম, পরিসংখ্যান বিভাগের প্রফেসর ড. তাজ উদ্দিন, লাইফ সায়েন্সের ডীন প্রফেসর ড. শামসুল হক প্রধান, বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. রিজাউল ইসলাম, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. সুলতান মাহমুদ টিপু, বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মুজিবুর রহমান চৌধুরী, কেমুসাসের সাবেক সভাপতি হারুনুজ্জামান চৌধুরী, কবি মুকুল চৌধুরী, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ লে. কর্নেল (অব.) সৈয়দ আলী আহমদ, সিলেট জেলা বারের সেক্রেটারী এডভোকেট হোসেন আহমদ, দৈনিক জালালাবাদের ভারাপ্রাপ্ত সম্পাদক আজিজুল হক মানিক, সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুহম্মদ বশিরুদ্দিন, কেমুসাসের সহ সভপাতি সেলিম আউয়াল, সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী, সিলেট মহানগর ইমাম সমিতির সভাপতি হাবিব আহমদ শিহাব, এডভোকেট হাসনু চৌধুরী, প্রফেসর ডা. হেনা বেগম, ডা. মোস্তফা শাহ জামান চৌধুরী বাহার, সৃজন সাহিত্য সংসদের সভানেত্রী শাহিদা বেগম, লেখক রেজওয়ানুর রহমান চৌধুরী শাহীন, কলামিস্ট বেলাল আহমদ চৌধুরী, অধ্যাপক বাছিত ইবনে হাবীব, সিলেট আইডিয়াল (ক্যাডেট) মাদরাসার অধ্যক্ষ ড. এ এইচ এম সোলায়মান, শিল্পপতি আলীমুল এহসান, কবি নাজমুল আনসারী, কবি শাহাদাত হোসাইন, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষা অফিসার শাহ মাসুদ, সংগঠক মো. নজরুল ইসলাম, সাংবাদিক ইকবাল মাহমুদ, ডা. হোসেন আহমদ প্রমুখ।

বার্তাপ্রেরক: মো. আব্দুল বাছিত।

ফেসবুক মন্তব্য