নিউজটি পড়া হয়েছে 414

এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরীর জানাজা লাখো মানুষের ঢল।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ::: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরীর জানাজা বাদ আসর চট্টগ্রামের লালদীঘি মাঠে সম্পন্ন হয়েছে। জানাজায় অংশ নেন লাখো মানুষ।এরআগে সর্ব সাধারণের শ্রদ্ধার জন্য নগরীর দলীয় কার্যালয়ের সামনে রাখা হয় তার মরদেহ। তার মৃত্যুতে শোকাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে পুরো নগরী।

সারি সারি মানুষের এ ঢল বলে দিচ্ছে চট্টগ্রামে কতটা জনপ্রিয় ছিলেন মহিউদ্দীন চৌধুরী। শেষবারের মতো বিদায় জানাতে লালদীঘি ময়দানে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ লাখো মানুষ অংশ নেন জানাজায়।

আজ (শুক্রবার) বিকেলে মহিউদ্দিন চৌধুরীর মরদেহ নেয়া হয় তার দলীয় কার্যালয়ে। সেখানে শ্রদ্ধা জানাতে আসেন দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা। দীর্ঘ ৫০ বছরের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনে সবশেষ তিনি চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন তিনি।

এর আগে প্রিয় নেতাকে দেখতে চট্টগ্রামের ২ নাম্বার গেট এলাকার বাড়িটিতে ভিড় করেন সর্বস্তরের মানুষ। প্রিয় নেতার মৃত্যুর খবরে অনেকে দূর দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন। তার এভাবে চলে যাওয়া অপূরণীয় ক্ষতি বলে উল্লেখ করেন তারা। জানান চট্টগ্রামের জনগণ মহিউদ্দিন চৌধুরীর অবদান আজীবন মনে রাখবে।

স্থানীয় এক নেতা জানান, মহিউদ্দিন চৌধুরীর অবদান চট্টগ্রামবাসী আজীবন মনে রাখবেন। তার নেতৃত্ব শূন্য চট্টগ্রামের রাজনীতিতে বিরাট প্রভাব পড়বে।

চট্টগ্রামের রাজনৈতিক অভিভাবক ছিলেন মহিউদ্দিন চৌধুরী। আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতা হলেও সবার কাছে সমান জনপ্রিয় ছিলেন তিনি। তার মৃত্যুর খবরে শুধুমাত্র নিজ দলের নয়, ছুটে আসেন অন্য রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরাও।

এদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘জলাবদ্ধতামুক্ত ও গ্রিন সিটি, ক্লিন ও আধুনিক চট্টগ্রাম যেই দিন গড়ে ওঠবে সেই দিনই মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে।

গত ১১ নভেম্বর যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠান শেষে বাসায় ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়েন সাবেক এই সিটি মেয়র। উন্নত চিকিৎসার জন্য ১৬ই নভেম্বর তাকে সিঙ্গাপুর নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসা শেষে ২৭ নভেম্বর প্রাথমিকভাবে সুস্থ হয়ে দেশে ফেরেন তিনি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আবারো অসুস্থ বোধ করলে মহিউদ্দীন চৌধুরীকে নগরীর ম্যাক্স হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে নেয়া হয় লাইভ সাপোর্টে। রাত ৩টার দিকে চিরবিদায় নেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও সাবেক সিটি মেয়র এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরী।

সুত্রঃ সময় টিভি 

ফেসবুক মন্তব্য
xxx