নিউজটি পড়া হয়েছে 26

শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ::: আর মাত্র কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা। বিজয়ের ঠিক আগ মুহূর্তে নির্মম হত্যাযজ্ঞের শিকার শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত রাজধানীর রায়েরবাজার ও মিরপুর বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ। ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করা হয়েছে সৌধের মূল বেদি ও আশপাশের এলাকা। সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদন নির্বিঘ্ন করতে এরই মধ্যে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর পক্ষ থেকেও নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

নয় মাস যুদ্ধের রক্তগঙ্গা পেরিয়ে পুরো জাতি যখন উদয়ের পথে দাঁড়িয়ে, ঠিক তখনই ইতিহাসের সবচেয়ে জঘন্য হত্যাযজ্ঞ। পরাজয়ের গ্লানি সইতে না পেরে ১৪ ডিসেম্বর রাতের আঁধারে জাতির সূর্য সন্তানদের বেছে বেছে হত্যা করে পাকবাহিনী।

প্রতিবছরের মতো এবারও বাঙালি জাতির শোকগাঁথা এই দিনটিকে স্মরণ করেতে নেয়া হয়েছে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি। শেষ মুহূর্তের ধোয়ামোছা আর পরিচ্ছন্নতার মধ্য দিয়ে প্রস্তুত রাজধানীর রায়েরবাজার বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ। প্রস্তুত মিরপুর বধ্যভূমিও।

বুদ্ধিজীবীদের জ্ঞান, প্রজ্ঞা আর দেশপ্রেমই পুরো জাতিকে উদ্বুদ্ধ করেছিল স্বাধীনতা সংগ্রামে। অর্জিত হয় কাঙ্ক্ষিত বিজয়। কিন্তু স্বাধীন বাংলার বুকে লাল-সবুজের পতাকা দেখতে দেয়া হয়নি তাদের। হত্যা করা হয় নির্মমভাবে। যাদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত এ স্বাধীনতা তাদের স্মৃতির প্রতি সম্মান জানানোর সব প্রস্তুতি সম্পন্ন।

গণপূর্ত বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো.  মাসুদুর রহমান বলেন, ‘সুশৃঙ্খলভাবে এখানে এসে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে এবং যাতায়াত করতে পারবে। এতে কোন সমস্যা হবে না। এরইমধ্যে আমরা সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি।

এদিকে, দিবসটিকে ঘিরে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

তেজগাঁও জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, ‘বুদ্ধিজীবী দিবসকে সামনে রেখে নিরাপত্তা সংক্রান্ত যেসব তথ্য পেয়েছি সেগুলো বিচার বিশ্লেষণ করে যে ধরণের পদক্ষেপ নেয়া দরকার সেটা নিয়েছি। কমপক্ষে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আমরা গ্রহণ করবো।

রাত বারোটা এক মিনিটে শ্রদ্ধার ফুল ফুলে ভরে উঠবে বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ।

সুত্রঃ সময় টিভি 

ফেসবুক মন্তব্য
Share Button
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •