নিউজটি পড়া হয়েছে 51

সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গার নিবন্ধন সম্পন্ন।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম ::: মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের নিবন্ধন প্রক্রিয়া এখন শেষ পর্যায়ে। নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরুর পর গত তিন মাসে নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে ৭ লাখের বেশি রোহিঙ্গার। ফলে রোহিঙ্গাদের শৃঙ্খলায় নিয়ে আসার পাশাপাশি নিবন্ধন কার্ডের মাধ্যমে ত্রাণ, চিকিৎসাসহ নানা সুযোগ-সুবিধা পাওয়া খুশি রোহিঙ্গারাও। শুধুমাত্র উখিয়া টেকনাফে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের ছাড়াও দেশের  বিভিন্নস্থানে ছড়িয়ে থাকা সকল রোহিঙ্গাকে নিবন্ধনের আওতায় আনার দাবি সংশ্লিষ্টদের। তবে প্রশাসন বলছে, ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সকল রোহিঙ্গাকে নিবন্ধনের আওতায় আনার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

মায়ানমার থেকে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে লাখ লাখ রোহিঙ্গা। কিন্তু কত রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে এর কোন সঠিক পরিসংখ্যান ছিলনা কারো আছে। তাই গত ১১ই সেপ্টেম্বর থেকে উখিয়া ও টেকনাফে সরকারিভাবে শুরু হয় রোহিঙ্গাদের ডাটাবেজ তৈরির কার্যক্রম। বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে তাদের নাম ও ঠিকানার সাথে সাথে ছবি, আঙ্গুলের ছাপ সংগ্রহ করা হচ্ছে। যা এখন শেষ পর্যায়ে।

এই নিবন্ধনের ফলে রোহিঙ্গাদের শৃঙ্খলায় নিয়ে আসার পাশাপাশি ত্রাণ, চিকিৎসাসহ নানা সুযোগ-সুবিধা পাওয়ায় খুশি তারাও।

তবে, বিভিন্নস্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সব রোহিঙ্গাকে নিবন্ধনের আওতায় আনা না হলে অনিবন্ধিত রোহিঙ্গারা পরবর্তীতে দেশের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়াবে বলে আশঙ্কা রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সংগ্রাম পরিষদের নেতারা।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাহিদুর রহমান বলেন, ‘ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সব রোহিঙ্গাকে নিবন্ধনের আওতায় আনার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

অভিবাসন ও পাসপোর্ট বিভাগের দেয়া তথ্য মতে, ১২টি বুথে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত নিবন্ধনের আওতায় এসেছে ৭ লাখ ৮৬ হাজার রোহিঙ্গা।

সুত্রঃ সময় টিভি 

ফেসবুক মন্তব্য
Share Button
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •