নিউজটি পড়া হয়েছে 157

শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় বিপ্লবী ফিদেল কাস্ত্রোর প্রথম মৃত্যবার্ষিকী পালন করল কিউবানরা।

সিলনিউজটুয়েন্টিফরডটকম :::: গভীর শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় বিপ্লবী ফিদেল কাস্ত্রোর প্রথম মৃত্যবার্ষিকী পালন করল কিউবার জনগণ। ২৬ নভেম্বর ছিল এ মহান নেতার মৃত্যবার্ষিকী। তার শেষ ইচ্ছা ছিলো তার নামে যেন কোন কিছুর নামকরণ করা না হয়। এমনকি কিউবার কোথাও যেন না রাখা হয় কোন ভাস্কর্য। তার সেই ইচ্ছা অক্ষরে অক্ষরে পালন করছে কিউবার মানুষ। দৃশ্যত কোথাও নাম লেখা না থাকলেও তিনি আছেন লাখো কিউবানের চিন্তা ও মননে।

মহান এই বিপ্লবীর প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধা জানাতে রাজধানী হাভানায় জড়ো হন নানা বয়সের মানুষ। তাদের হাতে ছিলো লাল রং লেখা ‘আমি ফিদেল’ স্লোগান। কিউবার ভাইস প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল ডায়াজ বলেন, আমি যখন দেখি ফিদেলের সমর্থনে শত শত তরুণ র‍্যালিতে অংশ নিচ্ছে তখন আমি আশান্বিত হই। আমার মনে হয়, যে স্বপ্ন ফিদেল দেখেছিলেন এই তরুণদের মাঝে তা বেঁচে আছে।

১৯২৬ সালের ১৩ আগস্ট কিউবার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের ওরিয়েন্তে প্রদেশে জন্ম নেন কিউবা বিপ্লবের মহানায়ক ফিদেল আলেসান্দ্রো কাস্ত্রো রুজ। ১৯৫৮ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে বড় ধরণের সাফল্য পায় কাস্ত্রোর গেরিলারা। সংঘটিত হয় ঐতিহাসিক কিউবান বিপ্লব। পরবর্তী অর্ধশতাব্দী কিউবাকে নেতৃত্ব দেন তিনি।

২০০৬ সালে শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ার পর ২০০৮ সালে ছোট ভাই রাউল কাস্ত্রোর কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করেন ফিদেল। এরপর জনসমক্ষে খুব কমই দেখা যেত তাকে। ২০১৬ সালের ২৫ নভেম্বর চিরবিদায় নেন এ বিপ্লবী নেতা।

ফেসবুক মন্তব্য
xxx