নিউজটি পড়া হয়েছে 384

পদত্যাগ করতে অস্বীকার করেছেন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাব।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম :::: জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে তার দেশের নিয়ন্ত্রণ নেয়া জেনারেলদের সঙ্গে সাক্ষাতের পর পদত্যাগ করতে অস্বীকার করেছেন। তবে একাধিক সূত্র মনে করছে, মুগাবে তার নিষ্ক্রমনের বিষয়ে দর কষাকষি করতে সময়ক্ষেপণ করছেন। খবর এএফপির।

মুগাবের পর ক্ষমতাসীন জেডএএনইউ-পিএফ পার্টির নেতৃত্বে কে আসছে, তা নিয়ে দ্বন্দ্বের মধ্যেই বুধবার জিম্বাবুয়ের ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ নেয় সেনাবাহিনী। তখন থেকেই ৯৩ বছর বয়সী মুগাবে গৃহবন্দি রয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাজধানী হারারেতে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

মুগাবেকে আলোচনার জন্য তার ব্যাক্তিগত বাসভবন থেকে একটি মটর বহরে স্টেট হাউসে নিয়ে যাওয়া হয়। আঞ্চলিক ব্লক সাউদার্ন আফ্রিকান ডেভেলপ কমিউনিটি (এসএডিসি)’র দূতরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। সেনাবাহিনীর সঙ্গে ঘনিষ্ট নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র এএফপি’কে বলেন, ‘তাদের সাক্ষাৎ হয়েছ্।ে তিনি পদত্যাগে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন। আমার ধারণা তিনি সময় ক্ষেপণের চেষ্টা করছেন।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেখানো হয়, নেভি ব্লু ব্লেজার ও ছাই রঙা ট্রাউজার পরা মুগাবে সেনা প্রধান কনস্টান্টিনো চিওয়েঙ্গার পাশে দাঁড়িয়ে আছেন। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

মুগাবের একচ্ছত্র আধিপত্যে থাকা জিম্বাবুয়েতে রাজনৈতিক সংকটের শুরুটা হয়েছিল গত সপ্তাহে। স্ত্রী গ্রেসকে ক্ষমতাসীন দলের নেতৃত্বে আনা ও পরে প্রেসিডেন্ট করার পথ সুগম করতে ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন ন্যাংগাগোয়াকে বরখাস্ত করেন মুগাবে। আর এতে ক্ষুব্ধ হয়ে চূড়ান্ত পর্যায়ে ক্ষমতার দখল নেয় সেনাবাহিনী। বাসস

ফেসবুক মন্তব্য
xxx