বিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম :::: বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারকে সম্পূর্ণ অবৈধ সরকার বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। তিনি বলেন, আপনারা মানুষ মারেন, খুন করেন-গুম করেন। আমরা আপনাদের শুদ্ধ করবো। আমরা সহিংস রাজনীতি করি না। তবে আপনাদের মানুষ করার জন্য আমরা শুদ্ধি অভিযান চালাবো।

তিনি রোববার ৭ নভেম্বর বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বহুদলীয় গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে বিএনপির জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

খালেদা জিয়া আরও বলেন, আমরা আওয়ামী লীগের মতো গুম-খুনের রাজনীতি করি না। তারা বাস পোড়ায়। মানুষ মারে।

বিএনপি চেয়ারপার্সন বলেন, আপনাদের অনেক মন্ত্রী বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় গেলে দেশে মানুষ হত্যা করবে। এটি সম্পূর্ণ ভ্রান্ত কথা, অপপ্রচার। আমরা সহিংস রাজনীতি করি না। আমরা প্রতিশোধের রাজনীতি করি না। তবে আপনাদের শুদ্ধ মানুষ করবো আমরা। কারণ আপনারা মানুষ মারেন, খুন করেন। সম্প্রতি ফেনীতে গাড়ি পুড়িয়েছে আওয়ামী লীগ। শেরাটনের সামনে যাত্রীবাহী বাসে গান পাউডার দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে। তত্ত্বাবধায়ক ইস্যুতে আওয়ামী লীগ জামায়াত ১৭৩ দিন হরতালের নামে দেশে আগুন জ্বালিয়ে অরাজকতা চালিয়েছিলো।

খালেদা জিয়া অারও বলেন, আমাদের রাজনীতি হলো জাতীয় ঐক্যের। আমরা বিশ্বাস করি বহুদলীয় গণতন্ত্রে। দেশে বহু মত, বহু পথ, বহুদল থাকবে। কিন্তু জাতীয় স্বার্থে সবাইকে এক হতে হবে। আমরা দেশের মানুষের জন্য জাতীয় ঐক্যের কথা বলছি। কিন্তু আওয়ামী লীগ তা চায় না। কারণ তারা মানুষকে ভয় পায়। তাই তারা মানুষের সমাবেশ করতে দিতে চায় না। বিএনপি শক্তি হলো দেশের মানুষ। আওয়ামী লীগ ৭ নভেম্বরকে ভয় পায়। কারণ এদিন দেশে বহুদলীয় গণতন্ত্র পুনঃপ্রবর্তিত হয়। আর তারা সবচেয়ে বেশি ভয় পায় মানুষকে। তাই আজ সমাবেশে আসতে বাধা দিয়েছে। যানবাহন বন্ধ করে দিয়েছে। এমনকি আমি যেন সমাবেশে আসতে না পারি তার জন্য রাস্তায় খালি, চালকবিহীন বাস দিয়ে যানজট সৃষ্টি করেছে সরকার।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আরও বলেন, বিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না। শেখ হাসিনার অধীনে কোনো সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না, হতে পারে না। যারা সামান্য স্থানীয় সরকার নির্বাচনেই ভোট চুরি করে জিততে চায় তাদের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের মতো বৃহৎ দায়িত্ব কোন ভাবেই নিরপেক্ষ হতে পারে না। নির্বাচনে ইভিএম বাতিল ও সেনা মোতায়েন করতে হবে।

Facebook Comments