নিউজটি পড়া হয়েছে 266

ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে রংপুরে হিন্দু বাড়িতে আগুন, একজন নিহত।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম :::: ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে রংপুরের পাগলাপীরে হিন্দুদের ৫টি বাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। চালানো হয়েছে লুটপাট। পুলিশের সঙ্গে মুসল্লি ও স্থানীয়দের সংঘর্ষে হামিদুল ইসলাম নামে এক যুবক মারা গেছে। আহত হয়েছে ১৫ পুলিশসহ অন্তত ২৫ জন।

গঙ্গাচড়া উপজেলার ঠাকুরপাড়া গ্রামের টিটু রায় নামে এক যুবক ফেসবুকে ইসলাম ধর্মের অবমাননা করে স্ট্যাটাস দিয়েছেন, এ অভিযোগে পাগলাপীর এলাকার মুসল্লিরা জুমার নামাজের পর জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করে। এক পর্যায়ে তারা টিটু রায়ের বাড়িতে আগুন দেয়।

তাদের সঙ্গে যোগ দেয় স্থানীয়রা। এরপর আরো ৪টি বাড়িতে আগুন দেয়া হয়। পাশাপাশি চালানো হয় লুটপাট ও ভাঙচুর। অবরোধ করা হয় রংপুর-ঢাকা মহাসড়ক।

পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে হামলা ও অগ্নিসংযোগকারীরা পুলিশের সাথে সংঘর্ষে জড়ায়। পুলিশ টিয়ার শেল ও রাবার বুলেট ছুড়ে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করে।

সংঘর্ষে আহত হয় ১৫ পুলিশসহ অন্তত ২৫ জন। আহত হামিদুল ইসলাম নামে এক যুবক রংপুর মেডিকেলে মারা গেছেন।

প্রায় সাড়ে তিনঘণ্টা পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। পরিস্থিতি শান্ত হলে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি দেখে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন হিন্দুরা।

এদিকে, ফেসবুকে দেয়া টিটু রায়ের স্ট্যাটাসের সত্যতা পেয়েছে পুলিশ। আহতদের রংপুর মেডিকেলসহ বিভিন্ন ক্লিনিক-হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ইন্ডিপেনডেন্ট  টিভি

ফেসবুক মন্তব্য
xxx