সিলেট সিক্সার্স-এর জয়রথ থামাল খুলনা টাইটানস।

নিজস্ব প্রতিবেদক :::: টানা তিন ম্যাচ জয়ের পর সিলেট সিক্সার্স-এর জয়রথ থামাল খুলনা টাইটানস। বিপিএল পঞ্চম আসরের সিলেট পর্বের শেষ ম্যাচে বুধবার নিজেদের মাঠে ৬ উইকেটে হারের মধ্যদিয়ে সিলেট পর্ব শেষ করল শুরু থেকে দুর্দান্ত খেলে যাওয়া সিলেট সিক্সার্স।

মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদের খুলনা টাইটানস ৬ উইকেটের বড় ব্যবধানে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নিয়েছে সিলেটের বিপক্ষে। সিলেট সিক্সার্সের দেওয়া ১৩৬ রানের জবাবে শুরুটা নড়বড়ে হয়েছিল খুলনার। দলীয় মাত্র ১৯ রান তুলতেই হারাতে হয় ২ উইকেট। খুলনার দুই ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্তকে ৭ রান এবং চ্যাডউইক ওয়ালটনকে ১১ রানে এক ওভারেই বোল্ড করে সাজঘরে ফেরান সিলেটের স্পিনার তাইজুল ইসলাম। চাপে পড়া খুলনাকে সেই অবস্থা থেকে টেনে তোলার কাজটা করতে থাকেন মাইকেল ক্লিঞ্জার এবং অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। তবে হুইটলির বলে ২৩ বলে ২৭ রান করে আবুল হাসানের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেন মাহমুদউল্লাহ। শেষ দিকে ক্লিঞ্জার অপরাজিত ৪৭ রান এবং ব্র্যাথওয়েট অপরাজিত ২৩ রান করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। সিলেটের তাইজুল ইসলাম ১৯ রানে নেন ৩ উইকেট।

এর আগে টস ভাগ্যটাও ছিল মাহমুদুল্লার। সিলেটকে ব্যাটিংয়ে নামিয়ে সিদ্ধান্তটা সঠিক প্রমাণ করেন মাহমুদুল্লাহ। খুলনার বোলারদের তোপের মুখে পড়তে হয় সিলেটের দুই ওপেনারকে। উপল থারাঙ্গা যথারীতি হাত খুলে খেলছিলেন। তবে ফ্লেচারকে একটু অন্যরকম লাগছিল। শেষ পর্যন্ত শফিউল ইসলামের বলে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর তালুবন্দি হন ফ্লেচার, আউট হন মাত্র ৪ রানে। লাস্ট ম্যাচে হাফ সেঞ্চুরিয়ান উপল থারাঙ্গাও বড় স্কোরের আশা জাগিয়ে মাহমুদুল্লাহর বলে আউট হন ২৬ রানে।

এরপর তিন নম্বরে ব্যাটিংয়ে এসে ব্যর্থতার ধাঁরা থেকে বের হতে পারলেন না সাব্বির রহমান। ফিরলেন কোন রান না করেই আর্চারের বলে। তবে ব্যাট হাতে আশা জাগিয়েছিলেন গুনাথিলাকা। কিন্তু ২৬ রানেই তিনি উইকেটকিপার ওয়ালটনের গ্লাভসবন্দী হন। এরপর হুইটলিকে সাথে নিয়ে রান তোলার লড়াই শুরু করেন অধিনায়ক নাসির। কিন্তু ১৯তম ওভারের তৃতীয় বলে ২৭ রান করা হুইটলি খুলনার আর্চারের বলে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন। অন্যপ্রান্তে আগলে রেখে ৩৫ বলে ৫ বাউন্ডারিতে সর্বোচ্চ ৪৭ রান করে অপরাজিত থাকেন নাসির হোসেন।

খুলনার অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ ১২ রানে ২ উইকেট নেন। আর্চার ২৫ রান দিয়ে নেন ২ উইকেট।

সিলনিউজটুয়েন্টিফোরডটকম/খোকন/ ৮নভেম্বর২০১৭

Facebook Comments